কলকাতা : ঘুরতে গিয়ে হোক কিংবা ছবির আউটডোর শ্যুটিং৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় সর্বক্ষণ সক্রিয় অভিনেত্রী সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বিদেশে গিয়ে এক্সপ্লোর করতে কার না ভালো লাগে৷ কিন্তু প্রতিটি জায়গার অথেন্টিক খাবার খেতে না পারলেই ঘোরাটা যেন অসম্পূর্ণ থেকে যায়৷ বাইরে গেলেই একের পর এক ছবি আপলোড করতে থাকেন সায়ন্তিকা৷ সেই অ্যালবামের মধ্যে সেলফি, গ্রুপফি, বিহান্ড দ্য ক্যামেরা সবকিছুর, শ্যুটিং লোকেশন, সবরকম ছবিই থাকে৷ তবে এর মধ্যে বিশেষত খাবারের ছবিই বেশি আপলোড করেন অভিনেত্রী৷

 

সম্প্রতি নায়িকা একটি ছবি আপলোড করেছেন যেখানে তিনি এবং তাঁর বন্ধু থাইল্যান্ড লোকাল ক্যুইজিন ট্রাই করছিলেন৷ ছবিতে একটি বড়ো মাছ প্লেটের ওপর রাখা৷ যাকে বিভিন্ন রকমের মশলা দিয়ে রান্না করে গার্নিশ করা হয়েছে৷ যেখানে থাইল্যান্ডের খাবারের মধ্যে এটি বিশেষ একটি খাবার৷ ডিশটির নাম প্লা সাম রোট৷ মাছের গায়ে চিরে চিরে মশলা ঢোকানো থাকে৷ রান্নাটাই ছবির মেন হাইলাইটেড অংশ৷ ছবিতে পোজ দিয়ে টেবিলের সামনে বসে সায়ন্তিকা এবং তাঁর বন্ধু৷

সেই ছবিতে প্রথমেই ট্যুইট করেছেন অভিনেত্রী কোয়েল মল্লিক৷ তিনি লিখেছেন, “প্লা সাম রট!! ভীষণ ভালো খেতে৷ ওখানকার আরও দুটো ডিশ ট্রাই করো প্লিজ৷ ‘সেন ইয়াও প্যাডপং কারি’, ‘সুকি হ্যাং’ আর ‘সোম ট্যাম’৷ আর গার্লিক পেপার ক্র্যাব তো পৃথিবীর সেরা খাবার৷” কোয়েলের এই ট্যুইটে বোঝাই যাচ্ছে তিনি কতটা খাদ্যরসিক৷ অবশ্য এই ট্যুইটে আলাদা করে বোঝার কিছু নেই৷ এর আগেও তিনি তাঁর অসংখ্য ইন্টারভিউতে বলেছেন তিনি কতটা খেতে ভালোবাসেন৷ বাঙালি বলে কথা খাদ্যরসিক তো হতেই হবে৷ তাই জন্যই অন্যান্য অভিনেত্রীদের মতো ছিপছিপে চেহারা মেনটেন করেন না তিনি৷ ডায়েটে থাকেন অবশ্যই৷ তবে একটা বাঙালিদের গোলগাল চেহারার ভাবটা থেকেই যায়৷ আর তাই জন্যই কোয়েলকে এতো পছন্দ সকলের৷

এ তো কোয়েলের কথা৷ তবে সায়ন্তিকাও যে এতটা খাদ্যরসিক জানা ছিল না৷ নিত্যদিন জিম, ওয়ার্ক আউটের ভিডিও পোস্ট করতে থাকেন তিনি৷ আর টলিউডের ফিটনেস ফ্রিক বলতেই সকলের মাথায় আগে সায়ন্তিকারই নাম আসে৷ খাবার দেখে জীভে জল তো আসেই কিন্তু নিজের স্ট্রিক্ট ডায়েট থেকে তিনি একেবারে নড়তে পছন্দ করেন না৷ কিন্তু থাই ক্যুইজিন দেখে আর লোভ সামলাতে পারেন নি অভিনেত্রী৷ ডায়েটচার্টকে ব্যাকসিটে রেখে মনের আনন্দে থাইফুড খেয়ে চলেছেন৷

কোয়েলের ট্যুইটে তিনিও রিপ্লাই দিয়ে বলেছেন, “ঠিকাছে মাথায় রাখব৷ এই জায়গার লোকাল ক্যুইজিনটা কিছুতেই ছাডা় যায়না৷ খাবার গুলো দেখলেই মারাত্মক লোভ লাগছে৷ তোমার বলা খাবার গুলোও এবার ট্রাই করব৷ থ্যাঙ্ক ইউ৷”