কলকাতাঃ লাগাতার মূল্যবৃদ্ধির বাজারে গতকাল দেশে জ্বালানির মূল্যে স্বস্তি মিলেছিল। অর্থাৎ অপরিবর্তিত ছিল পেট্রোল ও ডিজেলের মূল্য। তবে আমজনতার পকেটে টান ধরাতে আজ ফের মহার্ঘ পেট্রোপণ্যের দাম। রোজকার পেট্রোল-ডিজেল হারের ওঠানামা মূল্যের প্রভাব আমাদের পকেটে সরাসরি পড়ে। সেই কারণে আমরা প্রতিদিন এই হারের পরিবর্তনের দিকে নজর রাখি। দেশীয় বিপণন সংস্থাগুলি শুক্রবারের জন্য পেট্রোল-ডিজেল দাম প্রকাশ করেছে। বৃহস্পতিবার পেট্রোল ও ডিজেলের দাম (Petrol Diesel Price) অপরিবর্তিত থাকার পরে শুক্রবার ফের বৃদ্ধি হল। আজ দেশের বিভিন্ন শহরে পেট্রোলের দাম (Petrol Price)  প্রতি লিটারে ২৯ পয়সা এবং ডিজেলের দাম (Diesel Price) ২৮ পয়সা বেড়েছে।

উল্লেখ্য, ৫ টি রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের সময় পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম ((Petrol Diesel Price)) অনেক দিনই স্থিতিশীল ছিল। তবে ফলাফল ঘোষণার পর ৪ মে থেকে এই নিত্য প্রয়োজনীয় জ্বালানির দামের উত্থান শুরু হয়। বিগত মাসে (মে) মোট ১৭ দিন পেট্রোল-ডিজেলের দাম বেড়েছে।

আজ পেট্রোল ও ডিজেলের দাম কত ?

             শহর          পেট্রোল (টাকা)           ডিজেল (টাকা)
             দিল্লি             95.85               86.75
             মুম্বই            101.04              94.15
             চেন্নাই             97.19              91.42
            কলকাতা             95.80              89.60

পেট্রল ও ডিজেলের দাম কি এত ব্যয়বহুল?

ভারতে পেট্রোল এবং ডিজেলের প্রকৃত মূল্য এখন প্রায় ৩৩ টাকা। তবে এটির ওপরে চাপানো প্রচুর করের কারণে প্রতি লিটার পেট্রোল এবং ডিজেল কিনতে গ্রাহকদের ব্যয় করতে হচ্ছে মোটা টাকা। উল্লেখ্য, কেন্দ্রীয় সরকার পেট্রোলের উপরে ৩২.৯০ টাকা এবং ডিজেলের উপরে প্রতি লিটারে ৩১.৮০ টাকা শুল্ক আদায় করে। এর পরে রাজ্য সরকার ভ্যাট এবং শুল্ক আরোপ করে। পাশাপাশি গ্রাহকদের পরিবহন ব্যয়ের বোঝাও বহন করতে হয়। আন্তর্জাতিক বাজারে ডলারের বিপরীতে অপরিশোধিত তেলের দাম এবং টাকার ভিত্তিতে পেট্রোল-ডিজেলের দাম (Petrol Diesel Price) নির্ধারণ করা হয়।

কীভাবে পেট্রোল ও ডিজেলের দাম নির্ধারণ করা হয় ?

ভারতে পেট্রল-ডিজেলের দাম চার ধাপে ঠিক করা হয় —

প্রথমতঃ শোধনাগার, এখানে পেট্রোল, ডিজেল এবং অন্যান্য পেট্রো পণ্যগুলির অপরিশোধিত তেল কেনা হয়।

দ্বিতীয়তঃ তেল সংস্থা, তারা তাদের লাভ রেখে এবং পেট্রোল পাম্পে তেল সরবরাহ করে।

তৃতীয়তঃ এখানে পেট্রোল পাম্প মালিকরা তাদের নির্দিষ্ট কমিশন পেয়ে থাকেন।

চতুর্থতঃ কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের চাপানো আবগারি শুল্ক এবং ভ্যাট প্রদানের মাধ্যমে সাধারণ জনগণ সেই তেল কেনেন।

এছাড়াও, আপনি যদি নিজেই আপনার শহরের পেট্রোল-ডিজেলের দাম জানতে চান তাহলে অনুসরন করুন এই পদ্ধতি–

ইন্ডিয়ান অয়েলের ওয়েবসাইট আনুযায়ী, আরএসপি (RSP) ও নিজের শহরের কোড লিখে ৯২২৪৯৯২২৪৯ এই নম্বরে পাঠাতে হবে। প্রতিটি শহরের কোড আলাদা। এই কোড অবশ্য আপনি ইন্ডিয়ান ওয়েলের (Indian Oil) ওয়েবসাইটেই পেয়ে যাবেন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.