সাগর বাগচী, শিলিগুড়ি: ডাম্পিং গ্রাউন্ডে ময়লা ফেলতে গিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের বিক্ষোভের মুখে পড়লেন পুরকর্মীরা৷ বৃহস্পতিবার সকালে, পুরকর্মীরা ডাম্পিং গ্রাউন্ডে ময়লা ফেলতে গেলে স্থানীয় বাসিন্দারা তাঁদের বাধা দেয়৷ পুরকর্মীদের ময়লার গাড়ী ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য বিক্ষোভ দেখান তাঁরা৷এর ফলে এদিন পুরোপুরি ময়লা ফেলা বন্ধ থাকে।।তবে বিক্ষোভকারীদের সরাতে পুলিশ প্রসাশন এর সহযোগীতা নেয়নি মেয়র অশোক ভট্টাচার্য।বলা বাহুল্য, মেয়র পদে বসার পর থেকেই পানীয়জল এবং ডাম্পিং গ্রাউন্ডের সমস্যা তারা করে বেড়াচ্ছে অশোক ভট্টাচার্যকে। তাঁকেও ডাম্পিং গ্রাউন্ড পরিদর্শনে গিয়ে স্থানীয়দের বিক্ষোভের মুখেও পরতে হয়েছিল মেয়রকে।

 

 

 

 

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।