স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: লকডাউনের জেরে কর জমা দেওয়ার সময়সীমা বাড়ালো কলকাতা পুরসভা। জুন মাসে দেওয়া যাবে ২০১৯-২০ অর্থবর্ষের শেষ ত্রৈমাসিক কর। করোনা ভাইরাসের জেরে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। এই সময় জরুরি পরিষেবা ছাড়া অন্য কোনও কারণে বাইরে বেরতে নিষেধ করা হয়েছে। এদিকে এখন ২০১৯-২০ অর্থবর্ষের শেষ ত্রৈমাসিকের পুরসভার কর জমা দেওয়ার সময়। কিন্ত এই পরিস্থিতিতে সেই কর জমা দেওয়ার সময়সীমা বাড়াল কলকাতা পুরসভা।

জানিয়ে দেওয়া হল এই কর জুন মাসে দিলেও মিলবে ছাড়। মঙ্গলবার পুরভবনে এই কর সংক্রান্ত বৈঠকে বসেছিলেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। ছিলেন অন্যান্য পুর আধিকারিকরাও। সেখানেই এই কর জমা দেওয়ার তারিখ পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এদিকে ১৯৮০ সালের কলকাতা পুর আইন অনুযায়ী আগামী ৭ মে বর্তমান কাউন্সিলরদের পাঁচ বছরের মেয়াদ ফুরোচ্ছে। তার পর থেকে তাঁরা আর কাউন্সিলরের মর্যাদা পাবেন না। সেই হিসেবে পুর বোর্ডই ক্ষমতাচ্যুত হবে।

আইন অনুযায়ী তাই ওই সময়ের মধ্যে ভোট করতে হবে। সেই মতো প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছিল কলকাতা পুর নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা রাজ্য নির্বাচন কমিশন। কিন্তু বিশ্ব জুড়ে করোনার সংক্রমণ, সারা দেশে তিন সপ্তাহের লকডাউন পুরো হিসেব ওলটপালট করে দিয়েছে। লকডাউনের দিনক্ষণ ঘোষণার আগে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছিল, ৩০ মার্চের পরে পুর ভোটের সময়সূচি নিয়ে ফের বৈঠক হবে।

কিন্তু ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণার পরে আপাতত সবই বন্ধ। রাজ্য নির্বাচন কমিশন সূত্রের খবর, ১৪ এপ্রিলের পরে যদি লকডাউন উঠেও যায়, তা হলেও ৭ মে-র মধ্যে ভোট করা সম্ভব হবে না। আবার পুর আইন অনুয়ায়ী ৭ মে-র পরে কাউন্সিলরদের ক্ষমতা চলে যাবে। তাই কিছু দিনের জন্য হলেও বসাতে হবে প্রশাসক। এ বিষয়ে মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘‘এখন করোনার মোকাবিলা করাই আমাদের কাছে সবচেয়ে জরুরি। অন্য কিছু নয়।’’