জোহানেসবার্গ: আসন্ন ভারত সফরে দক্ষিণ আফ্রিকার কোচিং স্টাফ হিসেবে দেখা যাবে প্রাক্তন অল-রাউন্ডার ল্যান্স ক্লুজেনারকে। ভারত সফরের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং কোচ নিযুক্ত হলেন তিনি। তবে গোটা সফরে নয়, শুধুমাত্র টি-২০ সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকা দলের সঙ্গে কাজ করবেন ক্লুজনার।

প্রাক্তন অল-রাউন্ডারের পাশাপাশি ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া ভারত সফরের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং কোচ নিযুক্ত করা হয়েছে ভিন্সেন্ট বার্নসকে। ফিল্ডিং কোচ নিযুক্ত হয়েছেন জাস্টিন অনটং।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ৪৯টি টেস্ট ও ১৭১টি ওয়ান ডে খেলা ক্লুজনার এর আগে ডলফিনস’এর হেড কোচ হিসেবে কাজ করেছেন। জিম্বাবোয়ের ব্যাটিং কোচ হিসেবে কাজ করারও অভিজ্ঞতা রয়েছে তাঁর। ইউরো টি-২০ স্ল্যামে গ্লাসগো জায়ান্টসের হেড কোচ নিযুক্ত হয়েছেন ক্লুজনার। তবে টুর্নামেন্ট শুরুর দু’সপ্তাহ আগে তা স্থগিত করে দেওয়ায় আপাতত গ্লাসগোর দায়িত্ব নেওয়া হচ্ছে না প্রাক্তন প্রোটিয়া তারকার।

বার্নস এর আগে দীর্ঘ সময় দক্ষিণ আফ্রিকার বোলিং কোচ হিসেবে কাজ করেছেন। ২০০৩ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত প্রোটিয়াদের বোলিং কোচের ভূমিকা পালন করার পর দক্ষিণ আফ্রিকার হাই পারফরম্যান্স কোচের দায়িত্ব নেন তিনি। প্রোটিয়াদের হয়ে ২টি টেস্ট, ২৮টি ওয়ান ডে ও ১২টি আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচ খেলা অনটং ওটিস গিবসন প্রোটিয়াদের কোচ থাকাকালীন দক্ষিণ আফ্রিকার ফিল্ডিং কোচের দায়িত্ব পালন করেছেন।

ক্লুজেনারের নিয়োগ প্রসঙ্গে ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার অ্যাক্টিং ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট কোরি ভ্যান জিল বলেন, ‘প্রাক্তন প্রোটিয়া অল-রাউন্ডার ল্যান্স ক্লুজেনার শুধুমাত্র ভারত সফরের টি-২০ সিরিজের জন্যই সহকারি কোচের (ব্যাটিং) ভূমিকা পালন করবেন। এই মুহূর্তে সব ফর্ম্যাটের জন্য তাঁকে পাওয়া যাবে না। বিশ্বের অন্যতম সেরা অল-রাউন্ডার ছিলেন ক্লুজেনার। বিশেষ করে সাদা বলে ক্রিকেটে ওঁর রেকর্ডই ওঁর হয়ে কথা বলছে। ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট এবং আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, উভয় ক্ষেত্রেই ক্লুজেনারের কোচিং করার পর্যাপ্ত অভিজ্ঞতা রয়েছে। আমরা নিশ্চিত যে, ভারত সফরে দলকে নিজের অভিজ্ঞতা দিয়ে উদ্দীপ্ত করতে সক্ষম হবেন ল্যান্স।’

উল্লেখ্য, ১৫, ১৮ ও ২২ সেপ্টেম্বর ভারত সফরে তিনটি টি-২০ খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকা। ম্যাচগুলি অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ধরমশালা, মোহালি ও বেঙ্গালুরুতে। পরে আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের অন্তর্গত তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা। ২ অক্টোবর থেকে বিশাখাপত্তনমে খেলা হবে প্রথম টেস্ট। ১০ অক্টোবর থেকে পুণেতে খেলা হবে দ্বিতীয় টেস্ট এবং ১৯ অক্টোবর থেকে রাঁচিতে অনুষ্ঠিত হবে সিরিজের তৃতীয় তথা শেষ টেস্ট ম্যাচ।