সেঞ্চুরিয়ন: এ যেন চাকরীর দ্বিতীয় দিনেই টার্গেট অ্যাচিভ করে হৈচৈ ফেলে দেওয়া!

ভারতের বিরুদ্ধে সীমিত ওভারের সিরিজে নাম ছিল না৷ ডুপ্লেসি,এবিডি আর ডি’কক তিন তারকা ছিটকে যেতে উইকেটকিপার হিসেবে রাতারাতি ডাক পরে৷ আর তার পরই কেল্লাফতে৷

ওয়ান ডে অভিষেকেই নজর কাড়েন হেনরিক ক্লাসেন৷ জো’বাগের পিঙ্ক ওয়ান ডে ম্যাচে অপরাজিত ৪৩ রানে ম্যাচ জিতিয়ে রাতারাতি নায়ক! এবার টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকের পরের ম্যাচেই ম্যাচ জেতানো অর্ধশতরান৷ কেরিয়ারে এটাই প্রথম ফিফটি৷

এখানেই শেষ নয়, ধুঁয়াধার ব্যাটিংয়ের জন্য দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ম্যাচ সেরার পুরস্কারও জুটেছে৷ সেটাও ঘরের মাঠে নিজের ডেরায়৷ এমন ভাগ্য আর কজনেরই বা হয়!

বিষয়টাকে তাই ‘স্বপ্ন সত্যি’-র বলে ব্যাখা করছেন বছর ছাব্বিশের ডানহাতি ক্লাসেন৷ সঙ্গে জুড়ছেন, এবার শুধু এই বিধ্বংসী স্টাইলটাকে পেশায় পরিণত করতে হবে৷

ম্যাচে ৭টি ছয়, ৩ টি চার হাঁকিয়েছেন হেনরিক৷ ম্যাচ শেষে নিজের কথাতেই বুঝিয়ে দিলেন একবার নয়, বারবার এমন ধমাকা প্যাকেজ নিয়েই তিনি হাজির থাকবেন আগামী দিনে৷ বুঝিয়ে দিলেন চাকরীর দ্বিতীয় দিনে টার্গেট অ্যাচিভটা (টি-টোয়েন্টিতে অভিষেকের পরের ম্যাচেই অর্ধশতরান) ছিল সিনেমার একটা ট্রেলর, তবে ৬৯ রানের ইনিংসটা ফ্লুক নয়, পুরো ছবিটা এখনও বাকি৷

সুপারস্পোর্ট পার্কে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি জিতে শন পোলকের প্রশ্নে ক্লাসেন তাই শুধু বললেন ‘স্বপ্ন সত্যি হয়েছে, এবার এটাকেই পেশায় পরিণত করার পালা৷’