বেঙ্গালুরু: বোর্ড সভাপতি একাদশের বিরুদ্ধে ওপেনে নেমে রোহিত শর্মার ‘শূন্য’ রানের দিনে উজ্জ্বল কেএল রাহুল। বিজয় হাজারে ট্রফিতে ওপেনে নেমে দুরন্ত শতরানে সমালোচকদের জবাব দিলেন দক্ষিনী ব্যাটসম্যান। মূলত কেএল রাহুলের আগ্রাসী শতরানে ভর করেই বিজয় হাজারে ট্রফির প্রথম ম্যাচে এলিট গ্রুপে বড় জয় ছিনিয়ে নিল কর্ণাটক। চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে কেরলকে ৬০ রানে হারাল তারা।

প্রথমে ব্যাট করে এদিন চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে কেরলকে ২৯৫ রানের লক্ষ্যমাত্রা ছুঁড়ে দেয় কর্ণাটক। ওপেন করতে নেমে ১২২ বলে ১৩১ রানের মারমুখী ইনিংস খেলেন কেএল রাহুল। উল্লেখ্য, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে টেস্ট সিরিজে ব্যর্থতার পর ঘরের মাঠে প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে মাঠে নামার সুযোগ হয়নি টি-২০ সিরিজে। ক্যারিবিয়ান সফরে ব্যর্থতার কারণে ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টেস্ট স্কোয়াডে রাহুলের বদলি নতুন মুখ হিসেবে সুযোগ পেয়েছেন তরুণ শুভমন গিল। স্বভাবতই ওয়েস্ট ইন্ডিজে সুযোগ না পেলেও দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে সিরিজে রোহিতকে ওপেনে দেখে নিতে চাইছেন নির্বাচকরা। ওপেনিংয়ে রোহিত শর্মাকে সুযোগ দেওয়ার বিষয়ে সম্প্রতি সুর চড়িয়েছেন প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও।

সেই কারণেই বোর্ড সভাপতি একাদশের হয়ে শনিবার ওপেনে নামেন ‘হিটম্যান’। কিন্তু ভার্নন ফিল্যান্ডারের ডেলিভারিতে ‘ডাক’ হয়ে ফেরেন রোহিত। অন্যদিকে বিজয় হাজারে ট্রফিতে রাহুলের আগ্রাসী অথচ দায়িত্বশীল শতরান এদিন সাজানো ছিল ১০টি চার ও ৪টি ছয়ে। রাহুল ছাড়াও অধিনায়ক মনীশ পান্ডের অর্ধশতরান কর্ণাটককে ৩০০ রানের কাছাকাছি পৌঁছতে সাহায্য করে। যদিও এক বল বাকি থাকতেই অল-আউট হয়ে যায় তারা।

জবাবে কেরল ওপেনার বিষ্ণু বিনোদের ঝকঝকে শতরান কিংবা সঞ্জু স্যামসনের অর্ধশতরান সত্ত্বেও ম্যাচ হারতে হয় কেরলকে। দ্বিতীয় উইকেটে বিনোদ-স্যামসনের ১০৭ রানের পার্টনারশিপ সত্ত্বেও টেল এন্ডারদের চরম ব্যাটিং ব্যর্থতায় ৪৬.৪ ওভারে ২৩৪ রানেই অল-আউট হয়ে যায় কেরল। বিফলে যায় ১০টি চার ও ৩টি ছয়ে সাজানো বিনোদের ১০৪ রানের ইনিংস। স্যামসনের ৬৬ বলে ৬৭ রানের ইনিংসও মূল্যহীন হয়ে যায়।

অন্য ম্যাচে মুম্বইকে থ্রিলার ম্যাচে ৫ উইকেটে হারাল ছত্তিশগড়। প্রথমে ব্যাট করে বেঙ্গালুরুতে এদিন ৩১৭ রানের বড় স্কোর খাড়া করে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বই। ওপেনার আদিত্য তারের ৯০, অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারের ৫০, সূর্যকুমার যাদবের বিধ্বংসী ৩১ বলে ৮১ রানে ভর করে ছত্তিশগড়কে বড়সড় চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয় মুম্বই। জবাবে মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যান আমনদীপ খাড়ের ৯৪ বলে ১১৭ রানের অপরাজিত ইনিংস কাঙ্খিত জয় এনে দেয় ছত্তিশগড়কে।

৩৯ রানে অপরাজিত থেকে দলকে ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন আরেক ব্যাটসম্যান অজয় মন্ডল। এক বল বাকি থাকতেই ম্যাচ পকেটে পুড়ে নেয় ছত্তিশগড়। এছাড়াও জিয়ানজৎ সিং ও শশাঙ্ক সিং’য়ের ব্যাট থেকে আসে যথাক্রমে ৪৪ ও ৪০ রানের ইনিংস।