মুম্বই: চিন্নাস্বামীতে শনিবার বিরাটদের জয় স্বস্তি দিলেও ওয়াংখেড়েয় মোটেই স্বস্তিতে নেই কেকেআর৷ নীতা আম্বানির মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে ‘ডু অর ডাই’ লড়াই কিং খানের কলকাতা নাইটরাইডার্সের৷ হারলেই দ্বাদশ আইপিএল থেকে বিদায় নেবে কেকেআর৷ আর জিতলেই চতুর্থ দল হিসেবে পৌঁছে যাবে প্লে-অফে৷

মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে নাইটদের সাফল্য বিশেষ না-থাকলেও চলতি আইপিএলে ইডেনে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়ে ফের জয়ের সরণিতে ফিরেছে কেকেআর৷ এই আত্মবিশ্বাসেই ওয়াংখেড়েয় মুম্বই বধের স্বপ্ন দেখছে কিং খানের দল৷ শেষ চার বছর মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে জিততে পারেনি কলকাতা৷ কিন্তু এবার ইডেনে ‘মিথ’ ভেঙে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে পর্যুদস্ত করেছিল কেকেআর৷ জসপ্রীত বুমরাহদের বিরুদ্ধে ২৩৩ রান তুলে চলতি আইপিএলে সর্বোচ্চ রানের নজির গড়েছে নাইট ব্যাটস্যানরা৷

ঘরের মাঠে মুম্বই বধের পর হারানো আত্মবিশ্বাস ফিরে পায় নাইটরা৷ কারণ এবারের আইপিএলে দারুণ শুরু করেছিল কেকেআর৷ প্রথম চারটি ম্যাচের মধ্যে তিনটি জিতে এক সময় লিগ টেবলে চেন্নাই সুপার কিংসকে টপকে এক নম্বরে উঠে এসেছিল কলকাতা৷ কিন্তু তার পর টানা ছ’ ম্যাচ হেরে প্লে-অফ থেকে কার্যত ছিটকে গিয়েছিল ডিকে অ্যান্ড কোং৷ এ অবস্থায় নাইটদের অক্সিজেন দেয় রোহিত শর্মাদের বিরুদ্ধে জয়৷ ইডেনে মুম্বইকে ৩৫ রানে হারিয়ে প্লে-অফের রাস্তায় ফেরে কলকাতা৷

তার পর মোহালিতে কিংস ইলেভেনকে হারিয়ে প্লে-অফের আশা জিইয়ে রাখে৷ অর্থাৎ টানা দু’ ম্যাচ ‘ডু অর ডাই’ অবস্থা থেকে জিতে আজ আরব সাগরের তীরে আরও এক মরণবাঁচন ম্যাচে নামছে কিং খানের দল৷ শুভমন গিল, আন্দ্রে রাসেল, ক্রিস লিন ও অধিনায়ক দীনেশ কার্তিকের ফর্ম কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছে নাইট সমর্থকদের৷ টুর্নামেন্টের স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন রাসেল৷ কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে দুরন্ত ইনিংস খেলেন গিল ও লিন৷ ব্যাটিংয়ে মুম্বইয়ের থেকে এগিয়ে থেকে মাঠে নামবে কেকেআর৷ তবে নাইটদের বোলিংকে টেক্কা দেবে বুমরাহ, মালিঙ্গা, রাহুল চাহাররা৷
ওয়াংখেড়ের বাইশ গজ অবশ্য ব্যাটিং ফ্রেন্ডলি৷ ১৮০ রান তাড়া করেও জেতা সম্ভব৷