কলকাতা: উনিশের আইপিএলে ৮ ম্যাচের ৪তে জয়৷ নাইটদের এই চার জয়েই দীনেশের কেকেআরের সেরা বাজি ক্যারিবিয়ান অল-রাউন্ডার আন্দ্রে রাসেল৷ দ্রে রাসের বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের সামনেই খড়কুটোর মতো উড়ে গিয়েছে বিপক্ষ বোলিং! বিরাটের আরসিবি’র বিরুদ্ধে ঘরের মাঠ ইডেনে গেমচেঞ্জার সেই রাসেলের সার্ভিস পাচ্ছেন কি দীনেশ? নাইট সমর্থকদের কাছে এটাই এখন লাখ টাকার প্রশ্ন!

আরও পড়ুন- মাস্টার ব্লাস্টারের সঙ্গে ডিনার সেরে আপ্লুত পৃথ্বী

বুধবার প্রস্তুতিতে নেট বোলারের বল বাঁ কাঁধে আড়ছে এসে পড়েছিল৷ চোট পেয়ে দ্রুত মাঠ ছাড়েন দ্রে রাস৷ চোট গুরুতর হলেও হাড় ভাঙেনি বা চিড় ধরেনি৷ বৃহস্পতিবার পুরো দিনটাই বিশ্রামে থাকেন রাসেল৷ মাঠে আসেননি, চোট পাওয়া হাতে ব্যাটিংও ঝালাননি৷ এরপরও কাঁধের ফোলা ভাব থাকায় ম্যাচে তাঁর খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা৷ আস্তিনের সেরা তাসটা বাইরে রেখে একান্তই নামতে হলে দীনেশের পরিবর্ত ভাবনায় রাসেলের দেওয়ালি ভাই কার্লোস ব্রাথওয়েট৷

লিগে এখনও পর্যন্ত এক ম্যাচে সুযোগ পেয়ে নজর কাড়তে পারেননি কার্লোস৷ যদিও পয়া ইডেন আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ফাইনালে তাঁর রূপকথার চার ছক্কার ইনিংস সবসময়ই ব্রাথওয়েটের ফেভারে কথা বলে৷ রাসেল নাকি ব্রাথওয়েট শেষ পর্যন্ত কাকে দলে রেখে নাইটরা ঘুঁটি সাজায় সেই দিয়েই নজর আইপিএল জনতার৷

আরও পড়ুন: আর্চারকে বিশ্বকাপের দলে রাখল না ইংল্যান্ড

অন্যদিকে রাসেলের চোট আবহেই প্লেঅফের অঙ্ক ভাবাচ্ছে নাইটদের৷ লিগের শুরুটা ছন্দে করেও টানা তিন ম্যাচে হার৷ যার ধাক্কায় ৮ ম্যাচে ঝুলিতে মাত্র ৮ পয়েন্ট৷ সিঁড়ি বেয়ে মগডাল থেকে ক্রমেই ফিকে হতে হতে এখন পয়েন্ট টেবিলের ছয়’নম্বরে৷ অঙ্ক বলছে শেষ ৬ ম্যাচের চারটে না জিতলে প্লে-অফের জন্য অন্য দলের হাত-জিতের সমীকরণের দিকে চেয়ে থাকতে হবে নাইটদের৷

এই ৬ ম্যাচের মধ্যে দুটি আবার খেলতে হবে মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে৷ অতীতের রেকর্ড সাক্ষী লিগের লাস্ট ল্যাপে বরবারই ভয়ঙ্কর রোহিত অ্যান্ড কোম্পানি৷ সেই সঙ্গে নাইটদের কাছে মুম্বই আবার শক্ত গাঁট৷ সেক্ষেত্রে শেষ চার পাকা করতে দুর্বল আরসিবি ‘শিকার’ দিয়ে শুরুর চেয়ে দীনেশদের কাছে আর ভালো সুযোগ কিইবা হতে পারে!

আরও পড়ুন: মালিঙ্গার পরিবর্তে বিশ্বকাপে নতুন ক্যাপ্টেন বেছে নিল শ্রীলঙ্কা

একনজরে শুক্রবার ইডেন যুদ্ধে নামার আগে লিগ টেবিলে কেকেআর ও আরসিবি-

কেকেআর- ৮ ম্যাচে ৮ পয়েন্ট, আরসিবি- ৮ ম্যাচে মাত্র ১টি জিতে ২ পয়েন্ট৷ লিগ টেবিলের ছয় (কেকেআর) বনাম আট(আরসিবি)-র লড়াই৷

উনিশের আইপিএলে মুখোমুখি সাক্ষাৎ-

চিন্নাস্বামীতে প্রথমে ব্যাট করে আরসিবি- ২০৫/৩,

জবাবে রাসেলের ১৩ বলে ৪৮ রানের ধুঁয়াধার ইনিংসের সুবাদে ৫ বল বাকি থাকতে ৫ উইকেট ম্যাচ জিতেছিল কেকেআর৷