চণ্ডীগড়: চলতি আইপিএলের ভয়ঙ্কর জুটিকে শুরুতেই ভেঙে দিয়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ১৫০ রানে বেঁধে রাখল কিংস ইলেভেন পঞ্জাব৷ মোহালির বাইশগজের গতিকে কাজে লাগিয়ে দারুণ শুরু করেন পঞ্জাব বোলাররা৷ ডেভিড ওয়ার্নার ছাড়া সানরাইজার্সের অন্য কোনও ব্যাটসম্যান বিশেষ সুবিধা করতে পারেননি৷

ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারেই জনি বেয়ারস্টোকে ডগা-আউটে ফিরিয়ে প্রীতি জিন্টার দলকে দারুণ শুরু দেন মুজিব-উর রহমান৷ ইনিংসের শুরুতেই ওপেনিং পার্টনারকে হারিয়ে শান্ত হয়ে যান ওয়ার্নারও৷ পাওয়ার প্লে অর্থাৎ প্রথম ৬ ওভারে এক উইকেট হারিয়ে মাত্র ২৭ রান তোলে হায়দরাবাদ৷ চলতি আইপিএলে পাওয়ার প্লে-তে সেরা বোলিং পঞ্জাবের৷

দ্বিতীয় উইকেটে ওয়ার্নার ও বিজয়শঙ্কর ৪৯ রান যোগ করে সানরাইজার্স ইনিংসের হাল ধরার চেষ্টা করেন৷ কিন্তু ব্যক্তিগত ২৬ রান বিজয় শঙ্কর ডাগ-আউটে ফেরায় চার বাড়তে থাকে ওয়ার্নারের উপর৷ স্বাভাবিকভাবেই দায়িত্ব নিয়ে ইনিংসের হাল ধরেন বাঁ-হাতি ওপেনার৷ তাঁর স্বভাববিরুদ্ধ ব্যাটিং করে ৬২ বলে ৭০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন ওয়ার্নার৷

ইনিংসের অর্ধেক বল খেলে মাত্র একটি ছয় ও হাফ-ডজন বাউন্ডারি মারেন ওয়ার্নার৷ বিজয়শঙ্করের পর মহম্মদ নবি ও মনীশ পাণ্ডকে দ্রুত ফিরিয়ে ম্যাচে ফেরে অশ্বিনরা৷ নবি ১২ ও পাণ্ডে ১৯ রান করে ডাগ-আউটে ফেরেন৷ দীপক হুডা ৩ বলে ১৪ রান না-করলে দেড়শোর গণ্ডি টপকাত না সানরাইজার্সের৷ একটি ছক্কা ও দু’টি বাউন্ডারি মারেন হুডা৷ তবে ক্রিস গেইলকে দ্রুত ফেরাতে না-পারলে এই রান নিয়ে লড়াই করা কঠিন হবে ওয়ার্নারদের৷

আগের ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়ে বাড়তি আত্মবিশ্বাস নিয়ে এদিন কিংস ইলেভেনের ডেরায় নামে ওয়ার্নাররা৷ রোহিতদের হারিয়ে পয়েন্ট তালিকায় তিন নম্বরে ওঠে গতবারের রানার্সরা৷ অন্য দিকে আগেরর ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের কাছে হেরে এদিন ঘরের মাঠে নামবে কিংস ইলেভেন৷