দাঁড়িয়ে রয়েছি একবিংশ শতাব্দীতে। ডিজিটাল দুনিয়ায় এখন সবকিছুই ডিজিটাল। ঘরে হোক বা বাইরে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে না চললেই নয়। নাহলে পিছিয়ে পড়তে হয়। আর এই হাল ফ্যাশনের যুগে স্মার্টফোনের মতোই নিজের ঘরবাড়িকেও মর্ডান করে তোলার সময় চলে এসেছে। বাড়ির অন্দর সজ্জা হোক বা কিচেনরুম, ড্রয়িংরুম সবকিছুর সাজেই এসেছে বদল। ধুলো ময়লার তেলচিটে রান্নাঘর বা মাটিতে আসন পেতে কলা পাতায় খাওয়া এখন অতীত প্রায়। আধুনিক সভ্যতার সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগুলির জায়গায় এসেছে ডাইনিং টেবিল, মডিউলার কিচেন ক্যাবিনেট, অ্যাট্যাচ ওয়াশরুম আরও কত কী!

ফলে যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে গেলে মান্ধাতার আমলের চিন্তাধারা বদলে নিজের মতোই ঘরবাড়িকেও আধুনিক সজ্জায় না সাজালেই নয়। একঘেয়েমি ডাইনিং রুম, বেডরুম বা রান্নাঘর বদলে নতুনত্ব ভাবে ঘর গোছাতে কে না চাই বলুন তো? আপনিও নিশ্চয়ই চান? তবে শুধু চাইলেই হবে না। পকেটটাও দেখা জরুরি। আর পকেট ফ্রেন্ডলি বাজেটেই মনপছন্দ জিনিস দিয়ে একটু একটু করে সাজিয়ে তুলুন আপনর রান্নাঘর।

আর এই স্বপ্নের বাড়ি সাজিয়ে তুলতে খুব একটা খাটাখাটুনির দরকার নেই আপনার। বাইরে গিয়ে দৌড়ঝাঁপ না করে বরং বিভিন্ন অনলাইন শপিং সাইটে চোখ রাখুন আর পেয়ে যান আকর্ষনীয় ছাড়ে মনপছন্দ হোম অ্যাপ্লায়েন্স। তাহলে আর দেরী কেন? আজ থেকেই অল্প অল্প করে শুরু করুন ঘর সাজানোর কাজ।

শুধু তাই নয়, পুরো বাড়ি হোক বা রান্নাঘর তাকে সুন্দর করে সাজিয়ে তুলতে অন্দরমহলের সৌন্দর্য বাড়ায়ে রাখতে পারেন এই জিনিস গুলি…

1. কুকওয়েল বুলেট মিক্সচার : কোনওরকম ঝঞ্জাট ছাড়াই হালকা এই মেশিনে সহজেই যে কোনও জিনিস পেষাই করে নিতে পারেন আপনি। দেখতেও সুন্দর, দামেও কম।

2. কিচেন ক্লিনিং ব্রাশ: রান্নাঘরে বাসনপত্র বিশেষ করে পুড়ে যাওয়া পাত্রের দাগ ওঠানো ভীষণ এক ঝক্কির কাজ। তবে এবার থেকে সেই কাজকে সহজ করে তুলতে আজই ঘরে আনুন এই ক্লিনিং ব্রাশ গুলি। ঘষা মাজায় ভীষণ কাজে দেবে আপনার।

3. সিলিকন স্ক্র‍্যাবার: ননস্টিকের বাসনপত্র মাজতে এই স্ক্র‍্যাবার গুলি দারুণ কাজে দেবে। রান্নাঘরকে ঝঞ্জাট মুক্ত করতে এগুলি দিয়েও বাসনপত্র পরিস্কার করতে পারেন আপনি।

4. ফোল্ডেবেল স্টোরেজ কিউবস : সবজি আনাজপাতি হোক বা অন্যকোনও সামগ্রী ঝুড়ির বদলে আজ থেকে সব্জির কন্টেইনার হিসেবে এগুলি ব্যবহার করতে পারেন। আপনার রান্নাঘরে জায়গা নষ্ট না করে একসঙ্গে অনেক কিছু রাখতে পারবেন এই ধরনের কিউব গুলিতে reasonable price।

5. প্লাস্টিকের কিচেন সিঙ্কব্রাশ : যেকোনও বাড়ির রান্নাঘরের প্রধান সমস্যা হল বেসিন নিয়ে। চটজলদি রান্নার সময় নানারকম জিনিস ধুয়ে বেসিনে ফেলে দেওয়া হয়৷ তারমধ্যে অনেক কিছুই বেসিনের মুখে আটকে থাকে৷ নল দিয়ে বাইরে যেতে পারে না। ফলে বেসিনে জল দাঁড়িয়ে যায়। এবার থেকে সেই সমস্যা সমাধনে বেসিনের মুখে একটি ছাকনির মতো কাপড় বা পাত্র বসিয়ে রাখতে পারেন। যা দিয়ে তরল পদার্থ গুলি বাইরে বেরিয়ে যাবে এবং যেগুলি কঠিন জিনিস তা নিমেষেই ওই ছাকনিতে আটকে যাবে। ফলে বেসিন পরিস্কার করার সময় আপনার কাজ কমবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।