অমৃতসর: কেন্দ্রের নয়া কৃষি বিলের প্রতিবাদে পঞ্জাবের বিভিন্ন এলাকায় প্রতিবাদ-বিক্ষোভ জারি। অমৃতসরে কৃষি বিলের প্রতিবাদে একটানা ‘রেল রোকো’ অভিযানে সামিল কৃষকরা। বুধবার কৃষকদের প্রতিবাদ কর্মসূচি সাত দিনে পড়ল। দেবীদাসপুরে রেল লাইনে বসে কৃষি বিলের প্রতিবাদে কেন্দ্র-বিরোধিতায় সরব কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটি।

কেন্দ্রের নয়া কৃষি বিল নিয়ে দেশজুড়ে বিক্ষোভ-আন্দোলন চলছে। পঞ্জাব, হরিয়ানা, দিল্লি, রাজস্থান, বিহার-সহ একাধিক রাজ্যে কৃষি বিলের প্রতিবাদে পথে নেমে বিক্ষোভে সামিল কৃষকরা। কৃষি বিল নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে লাগাতার আন্দোলনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিরোধীরা।

পঞ্জাবের বিভিন্ন এলাকায় গত কয়েকদিন ধরেই পথে নেমে কৃষি বিলের প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন হাজার-হাজার কৃষক। অমৃতসরেও কেন্দ্র-বিরোধী বিক্ষোভ ব্যাপক আকার নিয়েছে। কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটির সদস্যরা দেবীদাসপুরা গ্রামে রেললাইনে বসে কেন্দ্র-বিরোধী স্লোগান তুলেছেন। একটানা সাতদিন ধরে ‘রেল রোকো’ অভিযানে সামিল কিষাণ মজদুর সংঘর্ষ কমিটি।

বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির দাবি, কেন্দ্রের এই নয়া কৃষি বিল কৃষক-স্বার্থ বিরোধী। এমএসপি বেঁধে দিক কেন্দ্র, দাবিতে সরব বিজেপি বিরোধীরা। যদিও এখনও পর্যন্ত বিরোধীদের সেই দাবিকে মান্যতা দেওয়ার ব্যাপারে কোনওরকম চিন্তাভাবনার পথে হাঁটছে না কেন্দ্রীয় সরকার।

এমনকী বিলে সই না করার আবেদন নিয়ে রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ হয়েছিলেন বিরোধী নেতারা। কৃষি বিলের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে ইতিমধ্যেই বিজেপির সঙ্গ ছেড়েছে বহুদিনের জোটসঙ্গী শিরোমণি অকালি দল। মোদী মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছেন অকালি দলের মন্ত্রীও।

বিরোধীদের অভিযোগ, কৃষকদের সর্বসান্ত করার চক্রান্ত করছে কেন্দ্রীয় সরকার। কৃষি বিল রাজ্যে-রাজ্যে কার্যকর হয়ে গেলে বিদেশি, দেশি কর্পোরেট সংস্থাগুলি কৃষকদের পণ্য নিয়ে মুনাফা লুঠবে বলে আশঙ্কা বিরোধীদের। ইতিমধ্যেই কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলিতে কৃষি বিল কার্যকর না করার ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রীদের পরামর্শ দিয়েছেন দলের অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।