মুম্বই: কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের সামনে জয়ের জন্য ১৮৭ রানের লক্ষ্যমাত্রা রাখল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স৷ ঘরের মাঠে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে মুম্বই নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৮৬ রান তুলেছে৷

ইনিংসের শুরুটা মন্দ হয়নি মুম্বইয়ের৷ প্রথম তিন ওভারে ওপেনিং জুটিতে ৩৭ রান তোলে তারা৷ তবে এভিন লুইস ৭ বলে ৯ রান করে আউট হওয়ার পরেই প্রাথমিক ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে রোহিতরা৷ পাওয়ার প্লে’র মধ্যে আরও দু’টি উইকেট হারায় মুম্বই৷ ষষ্ঠ ওভারের তৃতীয় ও চতুর্থ বলে পর পর সাজঘরে ফেরেন ইশান কিষাণ ও সূর্যকুমার যাদব৷ মুম্বইয়ের প্রথম তিনটি উইকেটই তুলে নেন অ্যান্ড্রু তাই৷

রোহিত শর্মা ব্যাড প্যাচ কাটিয়ে উঠতে ব্যর্থ৷ মাত্র ৬ রান করে অঙ্কিত রাজপুতের বলে যুবরাজ সিংকে সহজ ক্যাচ দিয়ে বসেন মুম্বই দলনায়ক৷ ক্রুনাল পান্ডিয়াকে সঙ্গে নিয়ে মুম্বইকে একশো রানের গণ্ডি পার করান চোট সারিয়ে দলে ফেরা কায়রন পোলার্ড৷ ক্রুনাল ২৩ বলে ৩২ রান করে স্টোইনিসের শিকার হলেও পোলার্ড ২২ বলে হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন৷ শেষে ৫টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ২৩ বলে ৫০ রান করে অশ্বিনের বলে ফিঞ্চের হাতে ধরা পড়ে যান ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার৷

বেন কাটিং বিশেষ যোগদান রাখতে পারেননি৷ মাত্র ৪ রান করে অশ্বিনের বলে আউট হন তিনি৷ হার্দিক ১২ বলে ৯ রান করে তাইয়ের চতুর্থ শিকার হন৷ ম্যাকক্লেনাঘান ১১ ও মার্কান্ডে ৭ রান করে অপরাজিত থাকেন৷

পঞ্জাবের হয়ে ১৬ রানে ৪ উইকেট নিয়ে চলতি আইপিএলের বেগুলি টুপি নিজের দখলে রাখেন তাই৷ ১৮ রানে দু’টি উইকেট নেন অশ্বিন৷ একটি করে উইকেট পেয়েছেন রাজপুত ও স্টোইনিস৷

মুম্বই ইনিংসের ১০ ওভারের পর হঠাৎ করে দু’টি বাতিস্তম্ভের আলো নিভে গেলে খেলা সাময়িকভাবে বন্ধ থাকে৷ মিনিট পাঁচেক পর পুনরায় আলো জ্বললে খেলা শুরু হয়৷

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প