সুমন মণ্ডল, তমলুক: ছেলেকে পেছনে সুপারি কিলার লাগিয়ে খুন করার অভিযোগে গুণধর বাবাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের জুনপুট কোস্টাল থানা এলাকায়। ধৃত বাবাকে বুধবার কাঁথি মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক ধৃতকে সাত দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

পুলিশ সূত্রে খবর, এবছরের ৬ মার্চ পূর্ব মেদিনীপুরের কাঁথি মহকুমার জুনপুট কোস্টাল থানা এলাকার ঝাউবনিতে এক অজ্ঞাত পরিচয় যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার করে কোস্টাল থানার পুলিশ। বছর ২৮-এর ওই যুবকের গলাকাটা মৃত দেহ উদ্ধারের পর পুলিশ৷ নিয়ম মতোই অজ্ঞাত পরিচয় মৃতদেহ হিসেবেই মৃতদেহের ময়না তদন্ত করে পুলিশ অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা দায়ের করে। এরপর যুবকটির মৃতদেহের ছবি নিয়ে বিভিন্ন থানায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়৷ কিন্তু ওই যুবকের কোনও পরিচয় জানা যায়নি। পরবর্তীকালে মৃতদেহটির দাবিদার কেউ না থাকায় সেটির সৎকারও করে দেওয়া হয়।

এই ঘটনায় পর বেশ কয়েকমাস কেটে যাওয়ার পর সম্প্রতি পুলিশ গোপন সূত্রে জানতে পারে যে, মৃত ওই যুবককে তাঁর মৃত্যুর দিন কয়েক আগে কাঁথি ও দীঘা সংলগ্ন এলাকায় ঘুরতে দেখা গেছে। যুবকটির সঙ্গে আরও দুই যুবক ছিল। কাঁথির পূর্ব পুরুষোত্তমপুরের বাসিন্দা জয়দেব মাইতি ও দেবদুলাল মাইতিকে চিহ্নিত করার পর দিন কয়েক আগে পুলিশ তাঁদের আটক করে। ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ জানতে পারে অজ্ঞাত পরিচয় মৃতদেহের যুবকটি আসলে পশ্চিম মেদিনীপুরের মোহনপুরের বাসিন্দা অনিমেষ ত্রিবেদী। তাঁকে বাড়ি থেকে ফুসলিয়ে বেড়াতে নিয়ে আসার টোপ দিয়ে তাঁরাই কন্টাইতে টেনে এনেছিল। দিন কয়েক ঘোরাঘুরির পর সময় বুঝে নির্জনে নিয়ে গিয়ে যুবকটির গলা কেটে খুন করে তাঁরা।

জেরায় ধৃতরা জানায়, যুবকটিকে খুন করার সুপারি দিয়েছিল তাঁর বাবা অশোক ত্রিবেদী। এক লক্ষ টাকার বিনিময়ে নিজের ছেলেকেই খুন করার সুপারি দেন তিনি। অশোক বাবু এলাকার প্রভাবশালী ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। মাস কয়েক আগে উড়িষ্যার কটকে চিকিৎসার জন্য গিয়েই তাঁদের আলাপ। কিন্তু তাঁর ছেলে অনিমেষ একেবারেই বখাটে, মদ্যপ এবং মাদকাসক্ত। মদ্যপ অবস্থায় এলাকার মহিলাদের ওপরেও মাঝেমধ্যে হামলা চালিয়েছে সে। এইটুকু বয়েসেই ছেলেটির অত্যাচারে তাঁর পরিবার অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিল। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতেই ছেলেকে খুনের সুপারি দিয়েছিলেন অশোক-বাবু। পুলিশ গোটা ঘটনা জানার পরেই অশোক-বাবুকে গ্রেফতার করে। ধৃত অশোক-বাবুকে বুধবার কাঁথি মহকুমা আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁকে পাঁচ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বলে পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে।