স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়াঃ সাপ্তাহিক হাটে সবজি কেনাবেচাকে কেন্দ্র করে ঝামেলার জেরে খুন হলেন এক ব্যক্তি। মৃতের নাম পূর্ণেন্দু মহান্তি। রবিবার বিকেলে ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার সারেঙ্গা থানা এলাকার সারেসকোল-জামবনী গ্রামে।

স্থানীয় সূত্রে খবর, বাঁকুড়া-ঝাড়গ্রাম রাজ্য সড়কের উপর পিরলগাড়ি মোড়ে এদিন সাপ্তাহিক হাটে সারেঙ্গার সারেসকোল গ্রামের বাসিন্দা, পেশায় সবজি বিক্রেতা অচিন্ত্য দাসের সঙ্গে স্থানীয় জামবনী গ্রামের পূর্ণেন্দু মহান্তীর কপির দাম নিয়ে বচসা হয়। পরে এদিন বিকেলে পূর্ণেন্দু মহান্তী বাড়ি থেকে বেরোনোর পর সারেশকোল ভাস্কর মোড়ে একটি পুকুরের পাশে তাকে একলা পেয়ে সব্জী বিক্রেতা অচিন্ত্য দাস লাঠি দিয়ে আঘাত করে বলে অভিযোগ। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় পূর্ণেন্দু মহান্তীর।

স্থানীয় বাসিন্দা বিকাশ মহান্তী মৃত পূর্ণেন্দু মহান্তী এলাকার সক্রিয় তৃণমূল কর্মী হিসেবে দাবি করলেও এই ঘটনার পিছনে কোন রাজনৈতিক যোগ রয়েছে কিনা সেবিষয়ে এখনই নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না বলে জানান। মৃতের ভাইপো তনুজিৎ মহান্তী বলেন, এদিন হাটে কপির দাম নিয়ে সবজি ব্যবসায়ী অচিন্ত্য দাসের ঝামেলা হয়। পরে বিকেলে তার কাকাকে রাস্তায় একলা পেয়ে ঐ সবজি ব্যবসায়ী লাঠিপেটা করে খুন করে বলে তার অভিযোগ।

এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। মৃতের পরিবারের তরফে সারেঙ্গা থানায় সবজি ব্যবসায়ী অচিন্ত্য দাসের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত অচিন্ত্য দাসকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।