কোপেনহেগেন: করোনা অতিমারির কারণে সাত মাস ঘরবন্দি ছিলেন তিনি। কিন্তু কোর্টে ফিরে ডেনমার্ক ওপেন ব্যাডমিন্টনে দুর্দান্ত জয় দিয়ে যাত্রা শুরু করেন কিদম্বি শ্রীকান্ত। বুধবার প্রতিযোগিতার পঞ্চম বাছাই শ্রীকান্ত মাত্র ৩৭ মিনিটেই ইংল্যান্ডের টোবি পেন্টিকে হারিয়েছিলেন৷ আর বৃহস্পতিবার কানাডিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বী জেসন অ্যান্থনি হো সু-কে মাত্র ৩৩ মিনিটি উড়িয়ে দিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছন প্রাক্তন বিশ্বের এক নম্বর ভারতীয় তারকা৷

অ্যান্থনির বিরুদ্ধে স্ট্রেট গেমে ২১-১৫, ২১-১৪ ম্যাচ জিতে নেন শ্রীকান্ত৷ দু’টি গেমেই আধিপত্য রেখে ম্যাচ জিতে নেন পঞ্চম বাছাই ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকা৷ শ্রীকান্তের আক্রমণাত্মক ও রক্ষণাত্মক খেলার সঙ্গে পেরে উঠতে পারেননি বছর বাইশের কানাডিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বী৷ কোয়ার্টার ফাইনালে শ্রীকান্তের লড়াই সম্ভবত দ্বিতীয় বাছাই তিয়েন চেনের বিরুদ্ধে৷

মার্চে অল ইংল্যান্ড ওপেনে প্রথম রাউন্ডে বিদায় নেওয়ার পর এটাই ভারতীয় ব্যাডমিন্টন তারকার প্রথম টুর্নামেন্ট৷ বুধবার প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডের টোবি পেন্টিকে উড়িয়ে দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছিলেন শ্রীকান্ত৷ ইংল্যান্ডের প্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে ভারতীয় তারকার পক্ষে ম্যাচের ফল ছিল ২১-১২ এবং ২১-১৮। এদিনও প্রতিদ্বন্দ্বীকে কোর্টে বিশেষ সুবিধা করতে দেননি৷ দু’টি গেমেই কানাডিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে ম্যাচ জিতে নেয় শ্রীকান্ত৷

করোনা অতিমহামারীর কারণে ডেনমার্ক ওপেন হল ২০২০ সালে বিডব্লিউএফ ক্যালেন্ডারে প্রথম মেজর টুর্নামেন্ট৷ শ্রীকান্ত থমাস ও উবের কাপে ভারতীয় দলে ছিলেন৷ কিন্তু মহামারীর ফলে দু’টি টুর্নামেন্টই বাতিল হয়ে যায়৷ তারপরই প্রথম টুর্নামেন্ট হিসেবে ডেনমার্ক ওপেনে খেলতে নামেন শ্রীকান্ত৷ তবে ডেনমার্ক ওপেনে মহিলা সিঙ্গলস থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন ভারতের দুই তারকা খেলোয়াড় পিভি সিন্ধিু ও সাইনা নেহওয়াল৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।