মুম্বই: বৃহস্পতিবার জাতীয় দলের সতীর্থ হার্দিক পান্ডিয়ার ফ্লাই পুশ-আপ চ্যালেঞ্জ নিয়েছিলেন তিনি। শুধু চ্যালেঞ্জ নেওয়াই নয়, তাতে আবার ক্ল্যাপ সহযোগে টুইস্টও যোগ করেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। করোনা পরিস্থিতির জেরে ব্যাট ধরার অবকাশ না থাকলেও করোনা পরবর্তী সময় বাইশ গজে স্বমহিমায় ফিরতে নিজেকে ফিট রাখার নিরন্তর প্রয়াস চালাচ্ছেন বিরাট। প্রায়ই বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে ফিটনেস ট্রেনিং’য়ের ভিডিও শেয়ার করছেন ‘রানমেশিন’।

বৃহস্পতির পর শুক্রবারও ফের একবার তাঁর ফিটনেস ভিডিও অনুরাগীদের জন্য শেয়ার করলেন বিরাট। তাঁর সবচেয়ে পছন্দের ওয়ার্ক-আউট পাওয়ার স্ন্যাচের ভিডিও এদিন পোস্ট করেন বিরাট। ক্যাপশন হিসেবে লেখেন, ‘আমি যদি কোনও শরীরচর্চা রোজ করতে চাই তবে সেটা হল পাওয়ার স্ন্যাচ। এটা করতে আমি ভীষণ ভালোবাসি।’ ফিটনেস ভিডিও দেখে সুযোগ বুঝে কোহলিকে ট্রল করতে আসরে নামেন প্রাক্তন ইংরেজ তারকা ব্যাটসম্যান কেভিন পিটারসন।

কোহলির পোস্টে মন্তব্য করে তাঁর সঙ্গে বাইকে ঘুরতে যাওয়ার ইচ্ছেপ্রকাশ করেন কেপি। ভিকেও ছাড়বার পাত্র নন। কালবিলম্ব না করে প্রত্যুত্তরে কোহলি জানিয়ে দেন এখন তিনি পিটারসনের আবদার মানতে একদমই রাজি নন। কোহলি পিটারসনকে বলেন, ‘অবসরের পর যাবো তোমার সঙ্গে ঘুরতে।’ বৃহস্পতিবার ফ্লাই পুশ-আপের সঙ্গে ক্ল্যাপ যোগ করে পান্ডিয়াকে চ্যালেঞ্জ করেছিলেন বিরাট। আর সেই ফিটনেস ভিডিও পোস্ট করে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোহলি লিখেছিলেন, ‘ওহে হার্দিক তোমার ফ্লাই পুশ-আপের ভিডিও আমার বেশ মনে ধরেছে। কিন্তু তাতে আমি ক্ল্যাপ যোগ করে আরেকটু আকর্ষণীয় করে তুললাম।’

উল্লেখ্য লকডাউনে কোহলির ওয়েটলিফটিং স্কিল, ওয়ার্ক-আউট ভিডিও যেমন অনুরাগীদের মোহিত করেছে তেমনই অবাক হয়েছেন তাঁর ফ্র্যাঞ্চাইজি সতীর্থ এবি ডি’ভিলিয়ার্স। করোনা পরিস্থিতির জেরে অগস্টের আগে জাতীয় দলের প্রস্তুতি শিবির আয়োজন সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তাই ব্যক্তিগত উদ্যোগে গাইডলাইন মেনে আউটডোর সেশন শুরু করেছেন পূজারা, শার্দুল, রোহিত, ইশান্ত, শামিরা। তবে কোহলি এখনও ঘরবন্দিই রেখেছেন নিজেকে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ