তিরুঅনন্তপুরম: করোনা আতঙ্কে কাঁপছে কেরল। মঙ্গলবার কেরলের ৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি টের পাওয়া গিয়েছে। আপাতত আক্রান্তদের কোয়েরান্টাইনে রাখা হয়েছে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে তৎপর কেরলের পিনারাই বিজয়নের সরকার। আপাতত কেরলের সব সিনেমা হল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।

দেশে লাফিয়ে-লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা৷ মঙ্গলবার দেশে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৫৭ ৷ কেরলে নতুন করে ৬ জন আক্রান্তের কথা এদিনই টুইট করে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন৷

করোনায় কেউ আক্রান্ত হলে তাঁদের চিকিৎসার জন্য আলাদা করে কোয়ারেন্টাইনে রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মঙ্গলবার কেরলের মোট ৬ জনের শরীরে মিলেছে করোনার নমুনা। ফলে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হল ১৫। তাঁদের মধ্যে ৩ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গিয়েছেন।

কেরলে নতুন করে করোনার থাবা আটকাতে তৎপর হয়েছে বিজয়ন সরকার। আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত রাজ্যের সিনেমা হলগুলি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। সাংবাদিক বৈঠক করে একথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন৷

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে রাজ্যে এক জায়গায় বেশি মানুষের জড়ো হওয়া বন্ধ করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ করছে রাজ্য সরকার৷ ভিড়ের মধ্যে থেকেই করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা সব থেকে বেশি থাকে৷ তাই ৩১ মার্চ পর্যন্ত রাজ্যের সমস্ত সিনেমা হল বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷

এরই পাশাপাশি, আপাতত সব ধরনের সামাজিক অনুষ্ঠানও পিছিয়ে দিতে রাজ্যবাসীকে আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। এমনকী ধর্মীয় ক্ষেত্রগুলিতেও ভিড় এড়াতে পরামর্শ দিয়েছেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী।

আপাতত বাড়িতে থেকেই ধর্মীয় আচার-আচরণ পালন করতে রাজ্যবাসীকে আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। পড়ুয়াদের সুরক্ষার জন্যও তৎপরতা নিয়েছে রাজ্য সরকার। সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত কেরলের সব স্কুলের পরীক্ষা পিছিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন।