তিরুঅনন্তপুরম : পুজো দিয়েছেন সকালে৷ সেখান থেকে সোজা বিজেপি কর্মীদের সভায়৷ এদিন কর্মীসভায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, কেরলে খাতা খুলতে পারেনি বিজেপি৷ কিন্তু তা বলে কেরলের গুরুত্ব কেন্দ্রের কাছে কোনও অংশ কম নয়৷

শনিবার কেরলের বিজেপি কর্মীদের উৎসাহ দিয়ে তিনি বলেন মানুষের জন্য কাজ করুন, কারণ বারাণসীর চেয়ে কোনও অংশে কেরলের গুরুত্ব কম নয়৷ নির্বাচনের নিজস্ব গুরুত্ব রয়েছে৷ কিন্তু মানুষের সুবিধা অসুবিধা অন্য জায়গায়৷ ১৩০ কোটি মানুষের দায়িত্ব নেওয়া মুখের কথা নয়৷ সেই দায়িত্ব পালনের ভার মানুষ আমাদের দিয়েছেন৷ বিজেপি সেই দায়িত্ব পালন করতে প্রস্তুত৷

মোদী এদিন বিজেপির স্থানীয় কর্মীদের উদ্দ্যেশ্যে বলেন যাঁরা ভোট দিয়েছেন, তাঁরা যেমন সরকারের দায়িত্ব, যাঁরা বিজেপিকে ভোট দেননি, তারাও ততটাই গুরুত্বপূর্ণ সরকারের কাছে৷ তাই সাধারণ মানুষকে অবহেলা নয়৷

আরও পড়ুন : ‘বিষ ছড়াচ্ছেন মোদী’, অভিযোগ রাহুল গান্ধীর

কেরলের বিজেপি কর্মীরা খুব ভালো কাজ করছেন বলে প্রশংসা করেন মোদী৷ তিনি বলেন বিজেপি কখনও ক্ষুদ্র ও সংকীর্ণ রাজনীতি করে না৷ বিজেপি কর্মীরা সারা বছর ধরে মানুষের জন্য কাজ করেন৷ দেশ গড়ার কাজে তাঁদের স্বার্থত্যাগ মানুষ মনে রাখবেন৷ বিজেপি কর্মীদের তপস্যাই আজ কেন্দ্রে তাঁদের জিতিয়ে এনেছে৷

এদিন প্রধানমন্ত্রীর কথা উঠে আসে নিপা ভাইরাস প্রসঙ্গ৷ এই প্রসঙ্গে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন কেন্দ্রের তরফ থেকে সব রকম সহযোগিতা পাবে কেরল৷ স্বাস্থ্য পরিষেবায় কোনও গাফিলতি বরদাস্ত করা হবে না৷ পরিকাঠামোর জন্য প্রয়োজনীয় সব ধরণের সুবিধা ও বন্দোবস্ত কেন্দ্র করে দেবে বলে এদিন আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী৷ রাজ্য সরকারের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কেন্দ্র এই ইস্যুতে কাজ করবে বলে জানান তিনি৷

উল্লেখ্য এদিন সকালে কেরলের গুরুবায়ুড় শ্রী কৃষ্ণ মন্দিরে পুজো দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী৷ করলেন তুলাভরনম অনুষ্ঠান৷ এই অনুষ্ঠানে বিশাল দাঁড়িপাল্লার একদিকে মোদী বসেন৷ অপরদিকে তাঁর ওজনের সমান পরিমাণ পদ্মফুল নিয়ে দেবতার পায়ে অর্পণ করা হয়৷

আরও পড়ুন : বিদেশ সফরে যাওয়ার আগে কেরলের মন্দিরে মোদী, দেখুন ছবি

এদিন সকাল ৯টা নাগাদ মন্দিরে প্রবেশ করেন মোদী৷ তাঁর মন্দির দর্শন উপলক্ষ্যে ১১টা পর্যন্ত সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য বন্ধ রাখা হয় এই শ্রীকৃষ্ণ মন্দির৷ শুক্রবার রাতে কোচিতে পৌঁছে যান প্রধানমন্ত্রীর৷ সেখানে ত্রিশূর জেলায় এই মন্দিরে পুজো দেওয়ার ইছ্ছা প্রকাশ করেছিলেন তিনি৷

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী শুক্রবার রাতে ছিলেন এর্ণাকুলাম গেষ্ট হাউসে৷ সেখান থেকে শনিবার ভোরে নৌসেনার হেলিকপ্টারে পৌঁছন মন্দিরে৷ পুজো দিয়ে বিজেপির নেতৃত্বে আয়োজিত অভিনন্দন সভায় বক্তব্য রাখেন মোদী৷ এই সভা অনুষ্ঠিত হয় শ্রীকৃষ্ণ হাইস্কুল মাঠে৷ বেলা ১১টায় এই সভায় উপস্থিত হয়ে কর্মীদের উদ্দ্যেশ্যে বক্তব্য রাখেন তিনি৷ বেলা ২টো নাগাদ কোচি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিশেষ বিমানে দিল্লি পৌঁছবেন প্রধানমন্ত্রী৷