লন্ডন: ম্যান সিটির পিছিয়ে যাওয়ার দিনে চ্যাম্পিয়নস লিগে শেষ চারের পথে একধাপ এগিয়ে গেল লিভারপুল। ভারতীয় সময় বুধবার রাতে জোড়া গোলে এফসি পোর্তোকে হারালো এই মুহূর্তে ইংলিশ প্রিমিয়র লিগ টপাররা। জুর্গেন ক্লপের দলের হয়ে এদিন গোলদুটি করেন ন্যাবি কেইটা ও রবার্তো ফিরমিনো।

গতবছর চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোয় লিভারপুলের কাছে হেরেই ছিটকে যেতে হয়েছিল পর্তুগালের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের। সুতরাং চলতি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল পোর্তোর কাছে কার্যত বদলার। কিন্তু বদলার ম্যাচে বুধবার প্রথমার্ধের হতাশাজনক পারফরম্যান্সই শেষ চারে যাওয়ার রাস্তা কঠিন করে দিল পর্তুগিজ ক্লাবের।

এদিন পোর্তোর কফিনে প্রথম পেরেকটি পোঁতেন মিডফিল্ডার ন্যাবি কেইটা। প্রিমিয়র লিগে সাউদাম্পটনের বিরুদ্ধেও শেষ ম্যাচে গোল পেয়েছিলেন তিনি। ম্যাচের ৯ মিনিটে বক্সের মধ্যে গুইনিয়ান মিডিওর শট বিপক্ষ এক ডিফেন্ডারের পায়ে আংশিক প্রতিহত হয়ে গোলে ঢুকে যায়। এক্ষেত্রে ইকের ক্যাসিয়াসের দর্শক হওয়া ছাড়া আর কোনও উপায় ছিল না। এরপর ২২ মিনিটে সালাহ ম্যাজিকে প্রায় দ্বিতীয় গোলের গন্ধ পেয়ে যায় রেডসরা।

একক দক্ষতায় বল ধরে আগুয়ান মিশরীয় স্ট্রাইকার ক্যাসিয়াসকে পরাস্ত করলেও অল্পের জন্য তাঁর প্রয়াস লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। যদিও দ্বিতীয় গোলের জন্য এরপর বেশিক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়নি লিভারপুলকে। ২৬ মিনিটে আলেকজান্ডার আর্নল্ডের মাটি ঘেঁষা ক্রস থেকে স্কোরলাইন ২-০ করেন ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার ফিরমিনো। ওখানেই জয় কার্যত নিশ্চিত হয়ে যায় রেডসদের। ম্যাচে ফেরার বিক্ষিপ্ত কিছু সুযোগ পেলেও তা কাজে লাগাতে পারেনি পোর্তো। ২ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় লিভারপুল।

লকাররুম থেকে ফিরে এসে ব্যবধান বাড়িয়ে নিতে উদ্যোগী হলেও দ্বিতীয়ার্ধে আর গোল তুলে নিতে পারেনি ক্লপের ছেলেরা। শুরুতেই স্যাদিও মানের একটি গোল অফসাইডের কারণে বাতিল হয়। ৭০ মিনিটে সেনেগাল ফুটবলারের একটি দূরপাল্লার শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। উল্টোদিকে গুরুত্বপূর্ণ অ্যাওয়ে গোল তুলে নেওয়ার কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েও ব্যবধান কমাতে ব্যর্থ হন মারেগা।

সবমিলিয়ে ঘরের মাঠে প্রথম লেগে ২-০ গোলে অ্যাডভান্টেজ লিভারপুল আগামী সপ্তাহে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ফের মুখোমুখি হবে পোর্তোর।