নয়াদিল্লি: বিমানসংস্থাগুলিকে যাত্রীদের বসার মাঝের জায়গা খালি রাখতে হবে অথবা সম্পূর্ণভাবে ঢেকে ফেলার জন্য গাউন দিতে হবে, ঠিক এমন নির্দেশ দিয়েছে দেশের এভিয়েশন রেগুলেটরি বডি ডিজিসিএ। সরকারের তরফে আগে জানানো হয়েছিল ভাড়া বৃদ্ধি করা হবে তাই মাঝের সিট খালি রাখা হবে। ডিরেক্টর জেনারেল অফ সিভিল এভিয়েশনে সোমবার বলা হয়েছে, যে সব যাত্রীদের মাঝের সিট দেওয়া হচ্ছে তাঁদের সকলকে অতিরিক্ত সুরক্ষা ব্যবস্থা দিতে হবে।

টেক্সটাইলমন্ত্রকের অনুমোদনপ্রাপ্ত গাউন, মাস্ক এবং ফেস শিল্ড দিতে হবে। রেগুলেটরি বডি জানিয়েছে, “যদি যাত্রীদের জন্য যদি সম্ভব হয় এমনভাবেই যাত্রীদের জন্য বসার জায়গা ব্যবস্থা করতে হবে যাতে মাঝখানের সিট খালি থাকে। তবে একই পরিবারের হলে সেক্ষেত্রে পাশাপাশি বসা যেতে পারে”।

নির্দেশে আরও বলা হয়েছে, কিছুক্ষণ অন্তর স্যানিটাইজ করতে হবে, পরিবর্তন করতে হবে কেবিন এয়ার এবং স্বাস্থ্যগতভাবে কোনও কারণ না থাকলে বিমানে কোনও খাবার এমনকি পানীয় জলেও থাকবে নিষেধাজ্ঞা। করোনা লকডাউনের দু’মাস পরে মে মাসের ২৫ তারিখ থেকে শুরু হয়েছে অন্তর্দেশীয় বিমান পরিষেবা। তবে দেশে এখনও শুরু হয়নি আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা।

সুপ্রিম কোর্ট সম্প্রতি একটি নির্দেশে বিমানে মাঝখানের সিট খালি রাখার নির্দেশ দিয়েছে যাতে একজনের থেকে অন্যজনের দুরত্ব বজায় থাকে এবং করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ নাগালে রাখা যায়। গতসপ্তাহে কেন্দ্র ও ডিজিসিএ-কে প্রবল চাপ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। আদালতের পক্ষ থেকে বলা হয়, বিমান পরিবহণ সংস্থাগুলির স্বাস্থ্যের চেয়ে জনগণের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রাখা উচিত।

এয়ার ইন্ডিয়াকে মাঝের আসনে যাত্রীর আগাম বুকিং নিতে নিষেধ করা হয় আদালতের তরফে। জুনের ৬ তারিখ অবধি এয়ার ইন্ডিয়া অন্যদেশ থেকে ফিরিয়ে আনার বিমানগুলিতে অনুমতি দেওয়া হবে। তবে মাঝের সিট খালি নেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে বম্বে হাই কোর্ট। আগামীকাল পিটিশন শুনবে আদালত। সিভিল এভিয়েশন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি আগেই জানিয়েছিলেন মাঝখানের সিটটি খালি রাখা হবে।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরুরদিকে ডিরেক্টরেট জেনারেল অফ সিভিল এভিয়েশনের তরফে (DGCA) পরীক্ষামূলক ভিত্তিতে ১৩টি দলকে ড্রোন অপারেট করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। সফলভাবে ট্রায়ালের পরে, বিমানসংস্থার কার্গো আরম স্পাইসএক্সপ্রেস অপরিহার্য মেডিক্যাল সামগ্রী পার্সেল এবং প্রয়োজনীয় জিনিস এবং খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়ার কাজ করবে, তেমনটাই জানা গিয়েছে।

প্রশ্ন অনেক: দ্বিতীয় পর্ব