হায়দরাবাদ: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আমন্ত্রণে পশ্চিমবঙ্গে আসছেন তেলেঙ্গানার নবনির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও বা কেসিআর। আগামী সোমবার তিনি কলকাতায় আসছেন।

২০১৪ সালে অন্ধ্রপ্রদেশ ভেঙে তৈরি হয়ে পৃথক রাষ্ট্র। ভারতের সেই নতুন রাজ্যের নাম হয় তেলেঙ্গানা। নতুন সেই রাজ্যের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী হয়েছিলেন তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রীয় সমিতির প্রধান কে চন্দ্রশেখর রাও। ২০১৯ সালে ওই রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিধানসভা ভেঙে যাওয়ায় তা আগেই হয়ে যায়।

সম্প্রতি ফের নির্বাচিত হয়ে মুখ্যমন্ত্রী হয়েছেন কে চন্দ্রশেখর রাও। দ্বিতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী পদে নির্বাচনের বিষয়ে নিশ্চিত ছিলেন তিনি। আসাদুদ্দিন ওয়াইসি-র এআইএমআইএম ছাড়া অন্য সকল রাজনৈতিক দল কেসিআর-এর বিরুদ্ধে সরব হয়েছিল। সকলেরই নিশানায় ছিল টিআরএস। বিজেপির পক্ষ থেকে তাবড় নেতাদের নামানো হয়েছিল কেসিআর-এর বিরুদ্ধে।

যদিও সেই সব বিষয় এখন অতীত। ভোট মিটে গিয়েছে সরকারও গড়েছেন কেসিআর। দ্বিতীয় স্ফায় সরকার গঠনের পরে রাজ্যের বাইরে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। শুক্রবার তা তেলেঙ্গানা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

তেলেঙ্গানা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও রবিবার সপরিবারে রাজ্যের বাইরে সফর করবেন। পরিবার নিয়ে অন্ধ্রপ্রদেশ, ওডিশা এবং পশ্চিমবঙ্গে যাবেন তিনি। সেখান থেকে দিল্লি যাওয়ার কথা রয়েছে।

রবিবার সকালে তিনি অন্ধ্রপ্রদেশে যাবেন বিশাখাপত্তনম শহরে রাজাশ্যামলা মন্দিরে পুজো দেওয়ার বিষয় রয়েছে তাঁর সফরসূচিতে। সেখান থেকে বিকেলে ওডিশা যাবেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে ওই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েকের বাড়িতে থাকবেন কেসিআর। সোমবার পুরির জগন্নাথ মন্দিরে এবং কোনার্ক সূর্য মন্দির দর্শন করে ভুবনেশ্বর বিমানবন্দর থেকে পশ্চিমবঙ্গের উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন তেলেঙ্গানায় মুখ্যমন্ত্রী।

সফর সূচি অনুসারে, সোমবার বিকেলের দিকে কলকাতয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন কেসিআর। সেই বৈঠক সেরে কালীঘাটের মন্দির দর্শন করবেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী। তারপরে রওনা হবেন দিল্লির উদ্দেশ্যে।