কাঁথিঃ গ্রামের মধ্যে সরকার অনুমোদিত মদের দোকানের আড়ালে গভীর রাতে মেয়েদের নাচ গানের আসর বসছে। এই অভিযোগে মদের দোকানে হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় উত্তেজনা ছড়ালো পূর্ব মেদিনীপুর ভগবানপুরে। ভগবানপুর থানা এলাকার মহম্মদপুর গ্রামে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বুধবার রাত থেকে।

গ্রামবাসীদের অভিযোগ, মদের দোকান থাকার ফলে এলাকার সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে। তারপর নতুনভাবে শুরু হয়েছে বাইরের মেয়েদের আনাগোনা। যা কোনভাবেই কাম্য নয়। এলাকার মহিলাদের অভিযোগ, মেয়েদের নিয়ে নাচগানের আসর বসে গভীর রাতে। শুধু তাই নয়, এলাকার মানুষের আরও অভিযোগ, মদ ব্যবসার আড়ালে শুরু হয়েছে দেহব্যবসা। আজ বৃহস্পতিবার সকালে এলাকার বিভিন্ন স্ব-সহায়ক দলের মহিলারা এবং এলাকার শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষ বিক্ষোভে সামিল হন মদ দোকানের সামনে।

আর সেখানে দোকান মালিক ও গ্রামবাসী ও মহিলাদের মধ্যে ব্যাপক তর্কবিতর্ক লেগে যায়। অবস্থা এতটাই উত্তেজিত হয়ে পড়ে যে উত্তেজিত জনতা ভাঙচুর চালায় মদের দোকানে। যদিও গ্রামবাসীদের তোলা দেহ ব্যবসার অভিযোগ অস্বীকার করেছে দোকান মালিক। তার দাবি, পরিকল্পনা মাফিক এই হামলা চালানো হয়েছে। পনেরো লক্ষ টাকা লুট হয়েছে দোকান থেকে। গন্ডগোলের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় ভগবানপুর থানার পুলিশ। গ্রামবাসীদের দাবি, অবিলম্বে এই মদের দোকান বন্ধ করুক সরকার। পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।