ইসলামাবাদ: ক্ষমতায় আসার আগে পাকিস্তানের মানুষকে ‘নয়া-পাকিস্তানে’র স্বপ্ন দেখিয়ে ছিলেন ইমরান খান। ক্ষমতায় এসে বারবার বদলে যাওয়ার কথা বলেছেন তিনি। পর্যটন থেকে বিজ্ঞান, কর্মসংস্থান থেকে বিনিয়োগ সবেতেই পাকিস্তানকে বদলে দেওয়ার স্বপ্ন দেখিয়েছেন ইমরান খান। তাঁর এই স্বপ্নেই মজে পাকিস্তানের মানুষ।

যদিও স্বপ্ন দেখানোই নয়, যাতে এর বাস্তব স্বাদও পাকিস্তানের মানুষ পায় সেজন্যে ইতিমধ্যে একগুচ্ছ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ইমরান খান সরকার। বিভিন্ন দেশে ছুটে গিয়েছেন বিনিয়োগের জন্যে। অবশেষে সাফল্যের মুখ দেখতে চলেছে ইসলামাবাদ। জানা গিয়েছে, পাকিস্তানের মাটিতে আরও ৩০০ কোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা করেছেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল সানি।

পাকিস্তানের সর্বাধিক প্রকাশিত সংবাদমাধ্যম ডন নিউজ জানাচ্ছে, কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল সানির নির্দেশে সে দেশের ডেপুটি প্রাইম মিনিস্টার এবং বিদেশমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ বিন আব্দুর রহমান আল-সানি নতুন করে এই বিনিয়োগের ঘোষণা করেছেন। সঞ্চয় ও সরাসরি দু’ভাবে নতুন এই বিনিয়োগ কার্যকর করা হবে। এরপরেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের অর্থনৈতিক উপদেষ্টা ড. আব্দুল হাফিজ শেখ নতুন করে বিনিয়োগের জন্য কাতারের আমিরকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

কাতারের বিদেশমন্ত্রী জানান, নতুন এই বিনিয়োগের মধ্য দিয়ে পাকিস্তান ও কাতারের অর্থনৈতিক অংশীদারিত্ব এখন ৯০০ কোটি ডলারে পৌঁছেছে। উভয় দেশ অর্থাৎ পাকিস্তান এবং কাতার সব ধরনের রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি পর্যায়ে সম্পর্ক উন্নয়নের ক্ষেত্রে আগ্রহী বলে জানিয়েছেন সে দেশের বিদেশমন্ত্রী।

গত শনিবার পাকিস্তান সফরে এসেছিলেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল সানী। কাতারের আমিরের পাকিস্তান সফরের পরই নতুন বিনিয়োগের এই ঘোষণা এল। দু দিনের সফরে কাতারের আমির পাকিস্তানের সঙ্গে বেশ কয়েকটি দ্বি-পাক্ষিক চুক্তিও করেছে। এরপরেও পাকিস্তানের মাটিতে বিশাল পরিমাণ এই বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিল কাতার।