শ্রীনগর: শুক্রবারের নমাজের পরেই গণ্ডগোল বাঁধল কাশ্মীরের নওহট্টা জেলায়৷ জেলার গুরুত্বপূর্ণ এলাকা জামিয়া মসজিদে শুক্রবারে নমাজ পাঠের পর বেরিয়ে আসছিলেন স্থানীয়রা৷ তখনই সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে৷

পুলিশ সূত্রে খবর বেশ কয়েকজন যুবক মসজিদের বাইরে জড়ো হয়৷ তারা ভারত বিরোধী শ্লোগান দিতে থাকে৷ সেখানে উপস্থিত পুলিশ কর্মী ও সিআরপিএফ জওয়ানদের দিকে পাথরও ছোঁড়া হয়৷ পালটা মার শুরু করে জওয়ানরাও৷

এই সংঘর্ষে কমপক্ষে ৫জন আহত হয়েছেন৷ বিক্ষোভকারী ও পুলিশ সংঘর্ষে মসজিদের সামনে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় গোটা এলাকা৷ পুলিশ জানিয়েছে পাথর ছোঁড়ার অভিযোগে ৫জন যুবককে আটক করা হয়েছে৷

জানা গিয়েছে, কাশ্মীরের জেলে বন্দিদের মুক্ত করার দাবি জানানো হয়৷ পুলিশ ও নিরাপত্তাকর্মীরা কাঁদানে গ্যাসের শেল ফাটায় ও পেলেট গান ব্যবহার করে উত্তেজিত জনতাকে ছত্রভঙ্গ করার জন্য৷ বিক্ষোভ চলাকালীন বেশ কয়েকজন যুবক আইএসের পতাকা প্রদর্শন করে বলে অভিযোগ৷

এদিকে, গতবছরই টাইমস নাওয়ের প্রতিবেদনে প্রকাশিত এক ভিডিওতে দেখা যায়, বেশ কয়েকজন যুবক কাশ্মীরের মাটিতে দাঁড়িয়ে আইএসের পতাকা ওড়াচ্ছে৷ যা নিয়ে চিন্তার ভ্রূকূটি পড়েছিল প্রশাসনের কপালে৷ জম্মু কাশ্মীরের সীমানায় অন্যতম ভয়ঙ্কর এই জঙ্গি সংগঠনের উপস্থিতির খবর সরাসরি অস্বীকার করেছিল কেন্দ্র৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের রাষ্ট্রমন্ত্রী হংসরাজ আহির বলেছিলেন, জম্মু-কাশ্মীরে আর কোনও আইএস জঙ্গি সক্রিয় নেই। রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে একথা বলেছিলেন তিনি৷

কিন্তু নভেম্বর মাসে প্রকাশিত এই ভিডিওটিতে আইএসের উপস্থিতির প্রমাণ মেলে৷ দিল্লি পুলিশের হাতেও দুই আইএস জঙ্গি গ্রেফতার হয় বলে খবর মেলে৷ মন্ত্রী হংসরাজ আহির বলেন, ‌আইন অনুযায়ী উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে সমাজবিরোধী কার্যকলাপে জড়িতদের বিরুদ্ধে। যারা আইএস ও পাকিস্তানের পতাকা নিয়ে গোলমাল পাকায় তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

আইন অনুযায়ী ২০১৫ সালে ৮টি, ২০১৬ সালে ৩১টি এবং ২০১৭ সালে ৫টি মামলা নথিভুক্ত করা হয়। শুধু তাই নয়, বড় সাফল্য হিসেবে ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনী চারজন আইএস জঙ্গিকে নিকেশ করে অনন্তনাগে। আর পুলিসের তথ্য অনুযায়ী আইএস জঙ্গিদের মাথা যে কাশ্মীরে সন্ত্রাস-নাশকতার সঙ্গে যুক্ত ছিল, দাউদ আহমেদ সফি তাকেও নিকেশ করা সম্ভব হয়৷