কলকাতা: থানাসহ কসবা এলাকায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে৷ ফলে শুরু হয়েছে স্যানিটাইজেশনের কাজ৷ জানা গিয়েছে, কসবা থানার ৭ পুলিশকর্মী এবার করোনা আক্রান্ত হয়েছেন৷ ওই পুলিশকর্মীদের লালারস পরীক্ষার জন্য নাইসেডে পাঠানো হয়েছিল৷

শনিবার সেই রিপোর্ট পজিটিভ আসে৷ আক্রান্ত ৭ জনের মধ্যে ১ জন সাব ইন্সপেক্টর, ৩ জন অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব ইন্সপেক্টর, ২ জন কনস্টেবল ও ১ জন সিভিক ভলান্টিয়ার বলে জানা গিয়েছে৷ কলকাতা পুরসভার উদ্যোগে কসবার বিভিন্ন এলাকায় শুরু হয়েছে জীবাণুমুক্ত কাজ।

বিবি চ্যাটার্জি রোড, কসবা বাজার, বোসপুকুর সহ থানা পার্শ্ববর্তী একাধিক এলাকায় ঘুরে ঘুরে সেনিটেশন অভিযান চালালেন পুরকর্মী ও দমকলকর্মীরা৷ এদিকে করোনায় মৃত্যু এক সিভিক ভলান্টিয়ারের৷ ইস্ট ট্রাফিক গার্ডে কর্মরত ছিলেন ওই সিভিক ভলান্টিয়ার৷ তার করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় নমুনা পরীক্ষা করা হয়৷ সেই রিপোর্ট পজিটিভ আসে৷ তারপর ওই সিভিক ভলান্টিয়ারকে ভর্তি করা হয় বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে৷ গতকাল সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়৷

অন্যদিকে, বাংলায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। রবিবারের হিসেব অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা দেড় হাজার ছাড়াল৷ শনিবার থেকে রবিবার সকাল ৯ টা পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের৷ ফলে এই পর্যন্ত মোট মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯৩২ জন৷ গতকাল শনিবার এই সংখ্যাটা ছিল ৯০৬ জনে।

তবে অ্যাক্টিভ আক্রান্তের সংখ্যা ১০,৫০০ জন৷ গতকাল ছিল ৯,৫৮৮ জন৷ একদিনে বেড়েছে ৯১২ জন৷ রবিবার রাজ্য স্বাস্থ্য ভবনের বুলেটিনের তথ্য অনুযায়ী, একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা ১,৫৬০ জন।ফলে এই পর্যন্ত মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৩০ হাজার ১৩ জন৷ গতকাল শনিবার ছিল ২৮,৪৫৩ জনে ৷

আক্রান্ত ও মৃতের পাশাপাশি অনেকেই সুস্থ হয়ে উঠেছেন। একদিনে ৬২২ জন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন। ফলে এই পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৮,৫৮১ জন৷ গতকাল ছিল ১৭,৯৫৯ জন। ফলে ৬৩.১১ শতাংশ থেকে কমে হল ৬১.৯০ শতাংশ৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ