বেঙ্গালুরু: সত্যি কত আজব ঘটনাই না ঘটে এই মজার দুনিয়ায়। পরীক্ষা হলে টোকাটুকি না করার জন্য বাক্স মাথাতে পরে পরীক্ষা দিল কর্ণাটকের একটি বেসরকারি কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা৷ এই রকম একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হয়েছে। ছবিতে দেখা গিয়েছে ছাত্ররা তাদের মিড-টার্ম পরীক্ষা দিচ্ছে এবং পরীক্ষকরা ক্লাসরুমে তাদের পাহারা দিচ্ছেন। ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রকাশিত হওয়ার পরে সমালোচনার ঝড় বয়ে গিয়েছে। বেসরকারি ওই কলেজকেও অনেক প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে।

শুক্রবার কর্ণাটকের শিক্ষামন্ত্রী এস সুরেশ কুমার এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন। টুইট করে জানিয়েছেন, এইধরনের ঘটনা মেনে নেওয়া যায় না। ছাত্রদের সঙ্গে এভাবে পশুর মত ব্যবহার করার অধিকার কারোর নেই।

সোশ্যাল মিডিয়াতে অনেকেই শিক্ষামন্ত্রীর মন্তব্য সমর্থন করেছেন। একজন লেখেন, টোকাটুকি একটি সমস্যা, এই সমস্যার অন্যভাবেও সমাধান করা যায়। এভাবে ছাত্র-ছাত্রীদের দের অপমান করে নয়।এই ঘটনার সমর্থনে উক্ত বেসরকারি কলেজের হেড এমবি সতীশ কুমার জানিয়েছেন বিহারেও টোকাটুকি বন্ধ করতে এই একই পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়েছিল এবং তা প্রশংসিত হয়েছিল৷

তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘আমরা ছাত্রদের উন্নতির জন্যই এই পদ্ধতি অবলম্বন করেছি, তাদের মন অন্যদিকে না যেতে পারে সেই কারণে তাদের বক্সের সামনের দিক খোলা ছিল৷ এর ফলে আমরা ভাল এবং খারাপ দুই ধরনের প্রতিক্রিয়া পেয়েছি৷’

এই ঘটনার পরে সাংবাদিকদের সামনে ডেপুটি ডিরেক্টর অফ পাবলিক ইন্সট্রাকশনের এক সিনিয়র অফিসার জানিয়েছেন, তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আরও জানিয়েছেন, পরীক্ষা চলাকালীন তিনি সেখানে গিয়েছিলেন এবং ছাত্রদের মাথা থেকে ওই বাক্স খোলার নির্দেশ দিয়েছিলেন। এছাড়াও এই রকম ঘটনা ঘটার কারণ কলেজ কতৃপক্ষের থেকে জানতে চেয়েছিলেন। স্কুল পরিদর্শক পীরজাদা জানিয়েছেন, তদন্ত প্রক্রিয়া শেষ হলেই তারা সিদ্ধান্ত নেবেন। ততদিন ছাত্রদের কলেজ কতৃপক্ষের নির্দেশ না মানার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।