বেঙ্গালুরু: করোনা চিকিৎসায় প্লাজমা থেরাপিতে ভরসা বেড়েছে। ইতিমধ্যেই একাধিক রাজ্য প্লাজমা ব্যাংক তৈরি করেছে। করোনামুক্তদের শরীর থেকে প্লাজমা নিয়ে আক্রান্তের শরীরে দেওয়া গেলে সংক্রমণ সারছে। ইতিমধ্যেই এব্যাপারে বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে সফলতা এসেছে।

সেই কারণেই এবার প্লাজমা ডোনারদের উৎসাহিত করার পথ নিয়েছে কর্নাটক সরকার। দক্ষিণের এই রাজ্যে এবার প্লাজমা দান করলেই সরকারের তরফে দেওয়া হবে ৫ হাজার টাকা।

করোনামুক্ত হলেও এখনও অনেকেরই প্লাজমা দান করা নিয়ে আপত্তি থাকে। সেই কারণেই প্লাজমা দানে করোনামুক্তদের উৎসাহিত করতে এই ব্যবস্থা কর্নাটক সরকারের।

কর্নাটক সরকার প্লাজমা ব্যাংক তৈরি করতে চায়। ইতিমধ্যেই সেই তৎপরতা পুরোদমে শুরু হয়ে গিয়েছে। রাজ্যের মন্ত্রী কে সুধাকর জানান, করোনা মোকাবিলায় প্লাজমা ব্যাংক তৈরি করতে চায় রাজ্য সরকার। ১০০০ জন ইতিমধ্যেই নাম নথিভুক্ত করেছেন।

কর্নাটকের মন্ত্রী সুধাকর আরও জানিয়েছেন, যাঁরা প্লাজমা দান করবেন তাঁদের প্রত্যেককে রাজ্য সরকারের তরফে ৫ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে। প্লাজমা দানে করোনামুক্ত ব্যক্তিদের উৎসাহিত করতেই এই ভাবনা বলে জানিয়েছেন ওই মন্ত্রী।

তামিলনাড়ু, তেলেঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশের পাশাপাশি কর্নাটকেও করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। যা নিয়ে রীতিমতো উদ্বেগে রয়েছে রাজ্য সরকার। করোনা মোকাবিলায় একাধিক পদক্ষেপ করলেও সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া আটকানো যাচ্ছে না। সেই কারণেই এবার সাম্প্রতিক পরিস্থিতির মোকাবিলায় প্লাজমা ব্যাংক তৈরির পথে হাঁটছে রাজ্য সরকার।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কর্নাটকে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭ হাজার ২৫৩ জন। দক্ষিণের এই রাজ্যে করোনায় মৃত বেড়ে ৯২৮। আক্রান্তের সংখ্যা যেমন বাড়ছে তেমনি সুস্থও হচ্ছেন অনেকে। বৃহস্পতিবার পর্যন্ত কর্নাটকে করোনামুক্ত হয়েছেন ১৮ হাজার ৪৬৬ জন।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ