সুরাট: সুপার লিগের শেষ ম্যাচে মুম্বইয়ের প্রত্যাশায় শুভমন গিল জল না ঢাললে কর্ণাটকের সেমিফাইনালে ওঠা হতো না৷ পঞ্জাবের বদান্যতায় শেষ চারের টিকিট হাতে পাওয়া কর্ণাটক অবশ্য বুঝিয়ে দিল যে, তারা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লক্ষ্যে কতটা মরিয়া৷

লালাভাই কন্ট্রাক্টর স্টেডিয়ামে সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-২০’র সেমিফাইনালে হরিয়ানাকে ৮ উইকেটে পরাজিত করে কর্ণাকট৷ টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে হরিয়ানা নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটের বিনিময়ে ১৯৪ রান তোলে৷ হাফ-সেঞ্চুরি করেন চৈতন্য বিষ্ণোই ও হিমাংশু রানা৷ এক ওভারে ৫ উইকেট নিয়ে অনবদ্য নজির গড়েন অভিমন্যু মিঠুন৷

আরও পড়ুন: সোশ্যাল মিডিয়ায় জোর চর্চা কালিসের এই ‘হাফ শেভ’ ছবি নিয়ে

পালটা ব্যাট করতে নেমে কর্ণাটক ১৫ ওভারে মাত্রা ২ উইকেট হারিয়ে জয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ১৯৫ রান তুলে নেয়৷ দুরন্ত ব্যাটিং করেন দেবদূত পাডিক্কাল ও লোকেশ রাহুল৷ হাফ-সেঞ্চুরি করেন কর্ণাটকের দুই ওপেনারই৷ যুবেন্দ্র চাহাল, জয়ন্ত যাদব ও অমিত মিশ্র, তিন তারকা স্পিনারই যথেচ্ছ মার খেয়েছেন লোকেশদের হাতে৷

বিষ্ণোই ৩৫ বলে ৫৫ রান করেন৷ তিনি ৭টি চার ও ১টি ছক্কা মারেন৷ রানা ৩৪ বলে ৬১ রানের আগ্রাসী ইনিংস খেলেন৷ তিনি ৬টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকিয়েছেন৷ ৬টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ২০ বলে ৩৪ রান করেন হার্ষাল প্যাটেল৷ ২০ বলে ৩২ রান করে তেওয়াটিয়া৷

আরও পড়ুন: এক ওভারে ৫ উইকেট টিম ইন্ডিয়ার কক্ষপথ থেকে ছিটকে যাওয়া তারকার

অভিমন্যু মিঠুন ইনিংসের শেষ ওভারে হ্যাটট্রিক-সহ পাঁচ উইকেট দখল করেন৷ হিমাংশু, তেওয়াটিয়া ও সুমিতকে আউট করে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন মিঠুন৷ চতুর্থ বলে মিশ্রকে আউট করে পর পর চার বলে চারটি উইকেট নেওয়ার নজির গড়েন তিনি৷ শেষ বলে তিনি তুলে নেন জয়ন্ত যাদবের উইকেট৷

কর্ণাটকের হয়ে লোকেশ রাহুল ৩১ বলে ৬৬ রান করে আউট হন৷ তিনি ৪টি চার ও ৬টি ছক্কা মারেন৷ পাডিক্কাল ১১টি চার ও ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৪২ বলে ৮৭ রান করে ক্রিজ ছাড়েন৷ ময়াঙ্ক আগরওয়াল ১৪ বলে ৩০ রান করে অপরাজিত থাকেন৷ ৩ বলে ৩ রান করে নট-আউট থাকেন মণীশ পান্ডে৷