কানপুর: লড়াই করেছে কারগিল যুদ্ধে। আর আজ সেই জওয়ানকে অপমানিত হতে হল রাজনৈতিক নেতাদের হাতে। সেনাবাহিনী থেকে অবসর নিয়ে কানপুরে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সিকিউরিটি গার্ডের কাজ করতেন গণেশ কুমার শুক্লা। সেনাবাহিনীতে ছিলেন মহর রেজিমেন্টে। বাইশ বছর দেশের হয়ে লড়াই করার পর অপমানিত এই সেনানি এখন প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ ‌যাদবের দ্বারস্থ। বিচার চান তিনি। প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে আবেদনে তিনি জানিয়েছেন, এই অপমান সহ্য করতে পারছি না। আপনি ব্যবস্থা নিন।

kargil

সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করা একটি ভিডিওতে গণেশ শুনিয়েছেন তাঁর অপমানের কাহিনী। জানিয়েছেন, গত মঙ্গলবার তিনি ‌যখন ডিউটি করছিলেন সে সময় তাঁর অফিসে আসেন সমাজবাদী পার্টির নেতা সি কে ত্রিপাঠি। গেট খুলতে দেরি হওয়ায় ত্রিপাঠি তাঁকে গালাগাল করতে শুরু করেন। তাঁকে নির্দেশ দেন স্যালুট করতে। গণেশ বলেন দেশের পতাকা, রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ছাড়া তিনি আর কাউকে স্যালুট করেন না। এতেই ভয়ঙ্কর ক্ষেপে ‌যান ওই এসপি নেতা। শুরু হয় মারধর।

ত্রিপাঠির নিরাপত্তারক্ষীরা গাড়ি থেকে নেমে তাঁকে প্রবল মারধর করেন। পেছন থেকে ত্রিপাঠি তাঁকে লাঠিও মারেন বলে অভি‌যোগ। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ ‌যাদবের কাছে এই অপমানের বিচারে চেয়েছেন গণেশ। তা না হলে তিনি আত্মঘাতী হবেন বলেও হুমকি দিয়েছেন।