মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পরে নেপোটিজম প্রসঙ্গ ঝড় তুলেছে বলিউডে। আর এই নেপোটিজম এর ধ্বজাধারী হিসেবে করণ জোহরের নাম উঠে আসছে সবার আগে। তাই বিগত কয়েক মাসে খবরে থেকেছেন করণ। তবে জানেন কি এক সময় যৌন হেনস্থা নিয়ে করণ কী বলেছিলেন!

২০১৮ সালে বলিউড সহ সারা দেশে হ্যাশট্যাগ মিটু ঝড় তুলেছিল। একের পর এক ঘটনা প্রকাশ্যে আসছিল। করণ জোহর এই প্রসঙ্গে ও তার মতামত স্পষ্ট করে বলেছিলেন নিজের রেডিও শো তে। সেই সৌতে এক শ্রোতা করণকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, যৌনতার ক্ষেত্রে সম্মতি কতটা প্রয়োজন? করণ সেদিন স্পষ্ট বলেছিলেন, সম্মতি ছাড়া যে কোনো রকমের যৌনতাকেই যৌন হেনস্থা বলে তিনি মনে করেন।

আরও পড়ুন: একসময় নিজের নাম থেকে ‘রাজপুত’ পদবী বাদ দিয়েছিলেন সুশান্ত

এমনকি প্রযোজক-পরিচালক এও বলেছিলেন যে, শুধু কথায় সম্মতি নিলেই দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। কারো সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার আগে তার অভিব্যক্তি দেখে বোঝা উচিত যে সম্মতি রয়েছে কিনা। সেই রেডিও শো তে বেশ কয়েকটি যৌন হেনস্থার ঘটনার উল্লেখ করেছিলেন করণ জোহর।

আরও পড়ুন: ভারতীয় সংস্থার হাত ধরে ২০০ কোটি ভ্যাক্সিনের ডোজ তৈরি করবে মার্কিন ফার্ম

তিনি বলেছিলেন, যৌন হেনস্থা মানে যেটা শারীরিক ভাবে হবে এর কোনও মানে নেই। এছাড়াও বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় কারকে যৌন হেনস্থা করা যেতে পারে। অনলাইনে অশ্লীল মন্তব্য করা অথবা গোপনাঙ্গের ছবি পাঠানো একে ও যৌন হেনস্থার মধ্যেই ফেলা যায় বলে বলেছিলেন তিনি। করণ সেদিন বলেন, “কারোকে গোপনাঙ্গের ছবি পাঠানোও ঠিক নয়। অথবা কেউ মদ্যপ অবস্থায় থাকলে তার সুযোগ নিয়ে তাকে স্পর্শ করা ঠিক নয়। সম্মতি ছাড়া ইঙ্গিতপূর্ণ মেসেজ করা উচিত নয়। সর্বোপরি সম্মতি ছাড়া যৌনতা যৌন হেনস্থা ছাড়া কিছু নয়।”

 

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।