মুম্বই- সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পিছনে দায়ী বলিউডের রাজনীতি এমনটাই মনে করছেন নেটিজেনরা। বলিউডের যে স্বজনপোষণ বা নেপোটিজম চলে তারই শিকার হয়েছিলেন সুশান্ত। এমনকি এই অভিযোগ এনেছেন কঙ্গনা রানাউত, প্রকাশ রাজ এবং মনোজ বাজপেয়ী এর মত অভিনেতারাও। কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হচ্ছে প্রযোজক পরিচালক করণ জোহরকে।

এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই করণ জোহরকে বহু নেটিজেনরা আনফলো করেছেন টুইটারে ও ইনস্টাগ্রামে। এক ধাক্কায় কমে গিয়েছে ফলোয়ারের সংখ্যা। অন্যদিকে করণ নিজেও টুইটারে অনেককে আনফলো করছেন।

এই মুহূর্তে টুইটারে করণ মাত্র আটজন কে ফলো করেন। এই ৮ জনের মধ্যে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, শাহরুখ খান, অমিতাভ বচ্চন এবং অক্ষয় কুমার। এছাড়া রয়েছে তার প্রোডাকশন হাউজের অফিশিয়াল অ‍্যাকাউন্ট।

বুধবার করণ জোহর সহ সলমন খান, একতা কাপুর, সাজিদ নাদিওয়ালা এবং সঞ্জয় লীলা বনসালির বিরুদ্ধে মুম্বইতে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। সুশান্ত সিং রাজপুতকে ব্যান করে তাঁকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার দায়ে অভিযুক্ত হয়েছেন তারা।

১৪ জুন নিজের ঘরে আত্মঘাতী হয় সুশান্ত সিং রাজপুত। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে থেকে জানা যাচ্ছে গত ছয় মাস ধরে অবসাদে ভুগছিলেন সুশান্ত। যদিও তার ঘর থেকে কোন সুইসাইড নোট পাওয়া যায়নি। ডিপ্রেশন এবং হাই প্রেসার এর কিছু ওষুধ পাওয়া গিয়েছে অভিনেতার ঘর থেকে। কিন্তু অবসাদের কারণ টা ঠিক কী। তা নিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

ঠিক এক মাস আগের একটি পোস্ট দেখে বোঝা যায় দেখে বোঝা যায় অবসাদের সঙ্গে তিনি লড়াই করছিলেন। চেষ্টা করছিলেন যাতে সুস্থ জীবনযাপন করা যায়। ৫ মে ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন সুশান্ত। ছবির ক্যাপশনে লিখেছিলেন ঠিক কী কী করলে সুস্থ জীবনযাপন করা যায়।

তিনি লিখেছিলেন, “শেষ কয়েক মাসে আমি কয়েকটি জিনিস চেষ্টা করেছি।” তিনি বলেছিলেন এই কাজগুলি তে সময় ইনভেস্ট করলে পরিবর্তে ভালো থাকা যায়। এই কাজ গুলির মধ্যে ছিল, প্রত্যেকদিন ৭ ঘন্টা টানা ঘুম, নিয়মিত মেডিটেশন করা, একটি জার্নাল লেখা, নিয়মিত শরীর চর্চা করা, কিছুটা সময় ডিজিটাল দুনিয়ায় দেওয়া, মাঝেমধ্যে উপবাস করা। তিনি মনে করেছিলেন জীবনের গুণমান বাড়ানো যায় এই কাজগুলি করে।

টেলিভিশন থেকে কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। নৃত্যশিল্পী হিসেবেও মন জয় করেছিলেন অনুরাগীদের। গুণ ও কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে বলিউডের ছবিতে কাজ করতেও তাই কোন গডফাদারের প্রয়োজন হয়নি। একের পর এক ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে মুগ্ধ করেছিলেন তিনি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ