নয়াদিল্লি: বিশ্বকাপ সেমিফাইনালে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে হতাশাজনক বিদায়ের পর বাইশ গজে আর ব্যাট হাতে ফেরেননি মহেন্দ্র সিং ধোনি। শিয়রে কড়া নাড়ছে আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণ। আর ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলার জন্য আগামী ২ মার্চ থেকে ব্যাট হাতে অনুশীলনে নেমে পড়ছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। একজন কট্টর অনুরাগী হিসেবে বাকিদের মত বাইশ গজে মাহির আস্ফালন দেখতে মুখিয়ে কপিলদেব। তবে ধোনির কামব্যাক হিসেবে নয়, বরং আইপিএল’কে আগামীর তারকা বাছাইয়ের প্ল্যাটফর্ম হিসেবেই দেখতে চান বিশ্বজয়ী অধিনায়ক।

উল্লেখ্য জাতীয় দলে অনিয়মিত হয়ে যাওয়ার কারণে ক্রিকেটারদের জন্য বোর্ডের যে বার্ষিক চুক্তির খসড়া, তা থেকেও বাদ পড়েছেন মাহি। এমন সময় ধোনির আইপিএল খেলা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বৃহস্পতিবার এইচসিএল গ্র্যান্ট ইভেন্টে কপিল জানালেন, ‘ধোনি আইপিএল খেলছেন সেটা খুব বড় বিষয় নয়। আমি বরং আইপিএল থেকে এমন কিছু তরুণ ক্রিকেটার চায় যারা আগামী ১০ বছর দেশকে গর্বের সাথে পরিষেবা দিতে পারে। ধোনি দেশকে অনেককিছু দিয়েছে।’

বিশ্বজয়ী অধিনায়ক মাহিকে নিয়ে আরেক বিশ্বজয়ী অধিনায়ক আরও বলেছেন, ‘একজন অনুরাগী হিসেবে আমি ওকে আগামী টি-২০ বিশ্বকাপে দেখতে চাইব। কিন্তু পুরো বিষয়টাই ম্যানেজমেন্টের হাতে। ও প্রায় একবছর কোনওরকম প্রতিযোগীতামূলক ক্রিকেট খেলেনি। তাই দলে জায়গা করে নিতে ওর উচিৎ আরও অনেক ম্যাচ খেলা। ভিন্ন ক্রিকেটারদের জন্য দলে ঢোকার ভিন্ন প্যারামিটার হতে পারে না।’ কপিলের বিশ্লেষণ, ‘এই মুহূর্তে কেরিয়ারের সায়াহ্নে ধোনি। তাই অনুরাগী হিসেবে তাঁকে আইপিলে দেখতে চাইলেও আইপিএল’কে আগামী প্রজন্মের ক্রিকেটার তুলে আনার ক্ষেত্র হিসেবেই দেখছি আমি।’

একইসঙ্গে অনুষ্ঠানে প্রসঙ্গ ওঠে জসপ্রীত বুমরার। যার সাম্প্রতিক ফর্ম নিয়ে চলছে বিস্তর কাটাছেঁড়া। কিন্তু ঘটনায় মোটেই বিচলিত নন ‘হরিয়ানা হ্যারিকেন’। জানালেন ফর্মে ফিরতে বুমরাহর প্রয়োজন একটি উইকেট টেকিং স্পেল। কপিলের কথায় চোট সারিয়ে পুরনো ফর্মে ফেরার জন্য শরীর কিছুটা সময় দাবি করে। তবে বেশি নয়। দু’টি উইকেটই বুমরাহকে ফের পুরনো ফর্মে ফিরিয়ে দেবে।

পাশাপাশি কেএল রাহুলের মত ফর্মে থাকা ব্যাটসম্যানকে টেস্ট সিরিজে দলে না রাখার বিষয়েও অনুষ্ঠানে আলোকপাত করেন কপিল। তবে গোটা বিষয়টা ম্যানেজমেন্ট এবং নির্বাচকদের উপর ছেড়ে দিয়েছেন তিনি।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।