লখনউ: অবশেষে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন বলিউডের গায়িকা কণিকা কাপুর। আরও একবার কোভিড ১৯ পরীক্ষায় তাঁর ফলাফল নেগেটিভ আসে। এর পরেই চিকিৎসকরা তাঁকে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার অনুমতি দেন।

এর আগেও একবার তাঁর সোয়াব পরীক্ষা করে চিকিৎসকরা কোভিড ১৯ নেগেটিভ পেয়েছিলেন। কিন্তু চিকিৎসকরা জানিয়েছিলেন, পর পর দুটি পরীক্ষার ফলাফল যদি নেগেটিভ আসে তা হলেই তাঁকে ছাড়া হবে। আর তাই দ্বিতীয়বার তাঁর ফলাফল নেগেটিভ আসায় কণিকাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়া হয়।

ইংল্যান্ড থেকে ফেরার ১০ দিন পরেই নানা রকম উপসর্গ যেমন জ্বর সর্দি কাশি হয় কণিকার। এর পরে লখনউয়ের সঞ্জয় গান্ধী হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। সেখানে কোভিড ১৯ পরীক্ষায় তাঁর ফলাফল পজিটিভ আসে। নির্দিষ্ট সময় অন্তর পাঁচবার পরীক্ষায় তাঁর রিপোর্ট পজিটিভ আসে। চতুর্থবারের রিপোর্টেও পজিটিভ আসার পরে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়ে তাঁর পরিবার। পরিবারের এক সদস্য সংবাদ সংস্থাকে জানিয়েছিলেন, “কণিকা চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন না। তাই ফের রিপোর্ট পজিটিভ এসছে। তাই আমরা খুবই চিন্তিত। দেশে লকডাউন। তাই উন্নততর চিকিৎসার জন্য় কণিকাকে নিয়ে অন্য কোথাও যেতেও পারব না। আমরা শুধুই ওর জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করছি।”

অবশেষে ষষ্ঠ ও সপ্তমবার সোয়াব পরীক্ষার পরে তাঁর ফলাফল নেগেটিভ আসে। কণিকা নিজেও বাড়ি ফেরার জন্য অপেক্ষা করেছিলেন। চতুর্থ বার পরীক্ষার ফলাফল পজিটিভ আসার পরে তিনি একটি পোস্ট করে লেখেন, কণিকাও বাড়ি ফেরার জন্য ব্য়স্ত হয়ে উঠেছিলেন। তিনি একটি পোস্টে লিখেছিলেন, “সবাই এত চিন্তা করেছেন তার জন্য অনেক ধন্যবাদ। কিন্তু আমি এখন আর আই সি ইউ তে নেই। আমি এখন বেশ খানিকটা ভালোই আছি। আশা করছি পরবর্তী টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে। আমি বাড়ি গিয়ে পরিবার ও আমার সন্তানদের সঙ্গে দেখা হওয়ার অপেক্ষা করছি। ওদের খুব মিস করছি।”