মুম্বই: কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত হওয়ার পরে নিজেই সেকথা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানালেন গায়িকা কণিকা কাপুর। পোস্টেই জানিয়েছিলেন, ফ্লুয়ের উপসর্গ দেখে তিনি চিকিৎসা করান। এবং সেখানেই তাঁর কোভিড ১৯ এর পজিটিভ রিপোর্ট আসে। কিন্তু আচমকাই সেই পোস্ট ডিলিট করেন কণিকা। কিন্তু কেন হঠাৎ সেই পোস্ট ডিলিট করলেন বেবি ডল।

কণিকা সেই পোস্টে লিখেছিলেন, “বিগত চার দিন ধরে ফ্লু এর উপসর্গ আমি দেখতে পাচ্ছিলাম। এরপরে আমি পরীক্ষা করায় এবং দেখা যায় আমার শরীরে পজেটিভ কোঢভিড ১৯ আছে। আমি এবং আমার পরিবার এখন সম্পূর্ণ কোয়ারেন্টাইন এ রয়েছি। আমাদেরকে যা পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে সেই মতই আমরা এগোচ্ছি। এই সময়ের মধ্যে আমার যাদের সঙ্গে দেখা হয়েছে তারাও পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। “

কণিকা লন্ডন থেকে ফিরে কোয়ারেন্টাইনে না গিয়ে অবাধে ঘুরে বেড়িয়েছেন। বিভিন্ন পার্টিও করেছেন। তাই ওই সময়ে তাঁর সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন তাঁরাও বেশ আতঙ্কে রয়েছেন। যদিও কণিকা রিপোর্ট পাওয়ার পরে নিজের ফলোয়ারদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেন।

তিনি লেখেন,”আমি দশ দিন আগে ফিরি। তখন এয়ারপোর্টে স্ক্যানিংয়ের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হয় এবং আমি বাড়ি চলে আসি। কিন্তু বিগত চার দিন ধরে আমি ফ্লু এর উপসর্গ লক্ষ্য করছিলাম। এরপরে পরীক্ষার মাধ্যমে জানা যায় আমার শরীরে পজিটিভ কোভিড ১৯ রয়েছে। এইরকম অবস্থায় আমি বলবো সবাইকে সেলফ আইসোলেশনে থাকতে এবং কোনও রকমের উপসর্গ দেখা গেলেই তা পরীক্ষা করতে। আমি ঠিক আছি, সামান্য জ্বর রয়েছে। আমাদের এখন দায়িত্বশীল নাগরিকের মতো পদক্ষেপ করতে হবে এবং চারপাশের সকলের ব্যাপারে ভাবতে হবে। আমরা আতঙ্কিত না হয়ে এর থেকে বাঁচতে পারি যদি আমরা আমাদের স্থানীয় প্রশাসন এবং সরকারের পরামর্শ মেনে চলি।”

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবারও কণিকার রিপোর্টে পজিটিভ আসে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, কণিকার এখন চিকিৎসা চলবে। যতদিন না তাঁর দুটো রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে ততদিন চিকিৎসা চলবে। কণিকার সঙ্গে হোটেলে ছিলেন তাঁর বন্ধু ওজাস দেসাই। তাঁরও পরীক্ষা করা হয়েছিল। কিন্তু সেই বন্ধুর রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।