নয়াদিল্লি: হিন্দি বলয়ে পার্টি বিস্তারের লক্ষ্যে, বিশেষত বিহারে, ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিআই) জাতীয় পরিষদের সদস্য করা হল জেএনইউ’র প্রাক্তন ছাত্র নেতা কানহাইয়া কুমারকে। কানহাইয়াকে নেওয়া হল সিপিআই-এর জাতীয় মুখপত্র নিউ এজ’এর সম্পাদক, বর্ষীয়ান সাংবাদিক শামিম ফইজির জায়গায়।

কারণ কিছুদিন আগেই তাঁর মৃত্যু হওয়ায় ওই পদটি ফাঁকা হয়েছিল৷ ফলে ওই পদের দাবিদারের দৌড়ে অনেকে ছিলেন৷ কিন্তু বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক সুধাকর রেড্ডি কানাইয়া কুমারের নামটিকেই বেছে নিলেন। এদিকে সিপিআই-এর নতুন সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন ডি রাজা। দিল্লিতে তিন দিনের জাতীয় পরিষদের শেষে সুধাকর রেড্ডির জায়গায় স্থলাভিষিক্ত হয়েছেন তিনি।

তখন সাংবাদিক বৈঠকে তিনি জানান, নরেন্দ্র মোদীর জমানায় গোটা দেশ একটি ফ্যাসিস্ত শাসনের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তাই লোকসভায় বামেরা আসন কম পেলেও তার মানে এই নয় তাদের রাজনীতি, মতাদর্শও হারিয়ে গেছে৷

পাশাপাশি এই বর্ষীয়ান এই কমিউনিস্ট নেতার বক্তব্য, বামপন্থীরাই একমাত্র মানুষের আশা। কেন্দ্রের জনবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে বামেদের লড়াই চলবে। নির্বাচনে বিজেপি জিতলেও রাজনীতিক কিংবা সামাজিক যুদ্ধে এখনও লড়াই চলছে।