কার্তিক আরিয়ানকে দোস্তানা ২ থেকে বাদ দেওয়ায় বি টাউনে উঠেছে শোরগোল। গতকাল করণ জোহারের ধর্মা প্রডাকশন টুইট করে স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিয়েছেন, তারা দোস্তানা ২ এর জন্যে নতুন করে কাস্টিং করবেন। কার্তিকের সঙ্গে ভবিষ্যতে কখনও কাজ করবেন না বলেও জানিয়েছেন করণ এবং তার প্রডাকশন হাউস। এরূপ সিদ্ধান্তে প্রতিবাদের রেষ দেখা দিয়েছে কার্তিক ফ্যানেদের মধ্যে।

এই বিষয়ে এবার মুখ খুললেন বলিউডের ঠোঁট কাটা অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাউত। কঙ্গনা সব সময়েই নিজেকে বলিউডের আর পাঁচটা অভিনেত্রীদের থেকে ভিন্ন স্রোতের মনে করেন। প্রতিবাদী সত্ত্বা নিয়ে চলেন। তাই এবারও তিনি কার্তিকের হয়ে প্রতিবাদে সবর হলেন।

করণ জোহারের সঙ্গে কঙ্গনার একটি ঠাণ্ডা লড়াই শুরু থেকেই চলে এসেছে। তাই করণের এমন কাজে কঙ্গনা মুখ খুলবেন সেটাই আশা করেছিলেন কঙ্গনার ফ্যানেরা। আর তিনি এবারও নির্ভয়ে করণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের আওয়াজ তুললেন। কার্তিকের পাশে দাঁড়িয়ে কঙ্গনা টুইট করে লিখেছেন, ‘কার্তিক তার নিজের দক্ষতায় আজ এত দূর এসেছে, ভবিষ্যতেও এগিয়ে যাবে। পাপা জো এবং তার নেপো গ্যাংয়ের কাছে একটাই অনুরোধ সুশান্তের মত কার্তিকে ঝুলে পরতে বাধ্য করো না। দয়া করে ওকে তোমরা একা ছেড়ে দাও’।

কার্তিকে ভরসা জুগিয়ে কঙ্গনা তার পরের টুইটে লিখেছেন, ‘এদের থেকে একদম ভয় পাওয়ার দরকার নেই তোমার। এই ধরণের কিছু জঘন্য আর্টিকেল এবং ঘোষণা প্রকাশ করে তোমায় দোষী বানিয়ে এরা এখন চুপ আছে। সুশান্ত সিংয়ের বিরুদ্ধেও তারা আনপ্রফেশনল ব্যবহার এবং মাদক আসক্তির গল্প ছড়িয়েছিল।’

কঙ্গনা আশ্বাস দিয়েছেন তিনি এবং জনতা সম্পূর্ণ সাপোর্ট করছেন কার্তিককে। তিনি কার্তিককে তার টুইটের দ্বারা সাহস জুগিয়েছেন। তিনি এদিন আবারও টুইট করে লিখেছেন, ‘যেনে রাখো আমরা সব সময় তোমার পাশে আছি। যে মানুষ তোমায় গড়েনি সে কোনদিন তোমায় ভাঙতে পারবে না। আমরা সবাই জানি জোহারকে, সে কেমন তাও জানি। তুমি অনেক ভালো কাজ করছ। ভবিষ্যতেও করবে। কেবল নিজের উপর ভরসা রাখো।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.