ইসলামাবাদ : পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের বিরুদ্ধে নয়া অভিযোগ পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার দানিশ কানেরিয়ার। এবার একদম ভিডিও করে তাঁর মনের কথা প্রকাশ করেছেন এই পাক লেগস্পিনার। তাঁর দাবি পাক বোর্ড তাঁর উপার্জনের জন্য কোনও ব্যবস্থা করে দেয়নি। গত এক দশক ধরে তাঁকে কর্মহীন হয়ে থাকতে হয়েছে। পাক ক্রিকেট বোর্ড তাঁর দিকে ঘুরে তাকায়নি। কিন্তু নির্বাসনে থাকার পর বহু পাক মুসলিম ক্রিকেটার দলে দারুণ ভাবে ফিরে এসেছেন। তাঁরা বোর্ডের সমস্ত সুযোগ সুবিধাও পাচ্ছেন।

কানেরিয়ার প্রশ্ন , শুধু তাঁর ক্ষেত্রে কেন এমন দ্বিচারিতা? তবে কি শোয়েব আখতার ঠিক সেই প্রশ্নই ইউটিউব ভিডিওর মাধ্যমে তুলে দিয়েছেন।

ক্রিকেট থেকে নির্বাসিত হওয়ার পরে পাক সরকার ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি) তাঁর জন্য কিছুই করেনি বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন তিনি। অভিযোগ করেছেন, ‘এটা সত্যি যে, পাকিস্তান সরকার ও পিসিবি-র কাছ থেকে আমি কোনও সাহায্যই পাইনি। আমার মতো অবস্থায় থাকা অন্য ক্রিকেটাররা কিন্তু পাকিস্তানের হয়ে খেলেছে। পিসিবি-র সাহায্যও পেয়েছে। এ রকম পরিস্থিতিতে পাকিস্তান সরকার যদি এগিয়ে না আসে, তা হলে প্রমাণ হয়ে যাবে শোয়েব আখতারই ঠিক বলেছে।’

আরও পড়ুন – শত্রুরা সাবধান, ভারতীয় সেনার হাতে আসছে ভয়ঙ্কর মারণ অস্ত্র

লেগ স্পিনার আরও বলেন, ‘ধর্মের ভিত্তিতে পাকিস্তানের মানুষ আমার সঙ্গে বৈষম্যমূলক ব্যবহার করেননি। পাকিস্তানের হয়ে খেলার জন্য আমি গর্বিত। সুতরাং পুরো বিষয়টা এখন আমার দেশের সরকার ও পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের হাতে। আমার ভবিষ্যৎ ঠিক করতে পারে ওরাই। আমার বিষয়ে পাক সরকার ও পিসিবি যদি কোনও সিদ্ধান্ত না নেয়, তা হলে বহির্জগতের কাছে এই বার্তাই যাবে যে, আমার সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করা হয়েছিল। আমি আশা করব, এই বিষয় নিয়ে ইমরান খান কাউকে রাজনীতি করার সুযোগ দেবেন না।’

দিন দু’য়েক আগে ‘রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’ এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে রীতিমতো বিস্ফোরণ ঘটান। হিন্দু দানিশ কানেরিয়াকে দলের কিছু ক্রিকেটারের অসম্মান করার শোয়েবের সেই দাবির পর থেকে পাকিস্তান ক্রিকেট উত্তাল। দানিশ কানেরিয়ার ঘটনা এখন আর পাকিস্তানের গণ্ডিতে আটকে নেই। সারা বিশ্বে আলোচনা হচ্ছে পাকিস্তান ক্রিকেটের এই বৈষম্য নিয়ে। যদিও পাকিস্তানের প্রাক্তন অধিনায়ক ইনজামাম উল হক শোয়েব আখতারের এমন দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV