দুবাই: গল টেস্টে একই সঙ্গে চাকিংয়ে অভিযুক্ত হলেন দু’জন ক্রিকেটার৷ নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন ও শ্রীলঙ্কান স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়ার বিরুদ্ধে সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনের অভিযোগ আনেন ফিল্ড আম্পায়াররা৷

পার্টটাইম স্পিনার হিসাবে গল টেস্টে ৩ ওভার হাত ঘোরান উইলিয়ামসন৷ তবে শ্রীলঙ্কার জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেন ধনঞ্জয়া৷ ম্যাচে ৬৮ ওভার বল করেন তিনি৷ প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিয়ে ধনঞ্জয়াই নিউজিল্যান্ড ইনিংসকে ভাঙার দায়িত্ব পালণ করেন৷

আরও পড়ুন: নিউজিল্যান্ডকে নেতৃত্ব দেবেন সাউদি

ম্যাচ অফিসিয়ালদের তরফে আইসিসি’কে রিপোর্ট দেওয়ার পাশাপাশি দু’দলের ম্যানেজারকেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বিষয়টি৷ পরে আইসিসি’র তরফে বজ্ঞপ্তি মারফৎ উইলিয়ামসন ও ধনঞ্জয়ার চাকিংয়ে অভিযুক্ত হওয়ার কথা জানানো হয়৷ নিয়ম মতো ১৮ অগস্ট অভিযুক্ত হওয়ার ১৪ দিনের মধ্যে দুই ক্রিকেটারকে বোলিং অ্যাকশনের বৈধতার পরীক্ষা দিতে হবে৷ যত দিন না পরীক্ষার রিপোর্ট হাতে আসছে, ততদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বোলিং করা আটকাবে না ধনঞ্জয়াদের৷ যার অর্থ, ২২ অগস্ট থেকে কলম্বোয় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া শ্রীলঙ্কা-নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় টেস্টে বোলিং করতে পারবেন দুই ক্রিকেটার৷

আরও পড়ুন: আগামী বছর নির্বাসন মুক্ত হবেন শ্রীসন্থ

২৫ বছর বয়সি ধনঞ্জয়া গত বছর নভেম্বরে গলে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট চলাকালীন সন্দেহজনক বোলিং অ্যাকশনে অভিযুক্ত হয়েছিলেন৷ প্রাথমিকভাবে সিংহলি স্পিনারের বোলিংয়ের উপর প্রতিবন্ধকতা জারি করা হয়৷ অ্যাকশনের ত্রুটি শোধরানোর পর গত ফেব্রুয়ারি মাসে আইসিসি ধনঞ্জয়ার বোলিং করার উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়৷ পুনরায় চাকিংয়ে অভিযুক্ত হওয়ায় ধনঞ্জয়াকে আরও একবার নিজের বোলিং অ্যাকশনের বৈধতা প্রমাণ করতে হবে৷ না-পারলে তাঁর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বল করার উপর দীর্ঘমেয়াদি নির্বাসন চাপিয়ে দিয়ে পারে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা৷