চেন্নাই: রজনীকান্তর পর এবার কমল হাসান। দক্ষিণের দুই বিখ্যাত নায়ক এবার রূপোলি পর্দা থেকে রাজনীতির আঙিনায়। ২০১৭ র ৩১ ডিসেম্বর নতুন দল গঠনের কথা ঘোষণা করেন সুপারস্টার রজনী। আর বুধবার সন্ধ্যা ৬ টায় নিজের নতুন দলের নাম ঘোষণা করবেন আরেক মহানায়ক কমল হাসান। তবে কি আগামী লোকসভা থেকেই তামিল দখলে নামবেন দুই প্রবাদপ্রতিম অভিনেতা ? রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মত অন্তত তাই।

আগামী ২০২১-এ তামিলনাড়ুর বিধানসভা নির্বাচন। ২৩৫ আসনের বিধানসভা দখলে কোমর বেঁধে নেমেছেন চেন্নাইয়ের দুই মেগাস্টার। প্রায় দু দশকের কৌতুহল মিটিয়ে গতবছরের শেষ দিনে নিজের নতুন দল গড়ার কথা ঘোষণা করেছেন রজনীকান্ত। তখনই আরেক অভিনেতা কমল হাসান নিজের নতুন দল গড়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন। আজ বুধবার সন্ধ্যায় তিনি তাঁর দলের নাম ঘোষণা করবেন।

পড়ুন: নেসের বিরুদ্ধে ৫০০ পাতার চার্জশিট ফাইল

১৮ ই ফেব্রুয়ারী কমল হাসান দেখা করেন রজনীকান্তের সঙ্গে। দল গঠন করার আগেই যে জোট নিয়ে কথা হচ্ছে তা একপ্রকার পরিষ্কার হয়েই যায়। ২০১৯-এর লোকসভায় ‘ট্রায়াল রান’ দিয়ে ২০২১-এর রাজ্য বিধানসভা ভোটকেই পাখির চোখ করে এগোচ্ছেন দক্ষিণের দুই সুপারস্টার। তবে এই বৈঠক নিয়ে দুই অভিনেতা কিন্তু বলেছেন, ‘এটা কোন পলিটিক্যাল বৈঠক নয়। এটা একটা সৌজন্য সাক্ষাৎ। বন্ধুত্বপূর্ণ সাক্ষাৎকার’৷ তবে বলার অপেক্ষা রাখে না যে, তাঁদের এই ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’ কথাটা রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা তো বটেই তাঁদের কোনও ফ্যানই বিশ্বাস করে নি।

যদিও দুজন দুটি দল গড়ে, মহাজোট গড়ে ভোটে লড়বেন কিনা এটা এখনও পরিষ্কার নয়। রজনী ও কমলের কথায় তাঁরা লড়াই করবেন সাধারণ মানুষের জন্য। তবে সেটা একসঙ্গে কিনা তা এখনও ঠিক হয় নি। সেটা এত তাড়াতাড়ি হবে বলে মনেও করছেন না রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

পড়ুন: আর কিছুক্ষণের মধ্যেই দল ঘোষণা কমল হাসানের

তবে, আলাদা আলাদা রাজনীতি করে কতটা সফল হতে পারবেন রজনীকান্ত ও কমল হাসান ? প্রশ্নটা কিন্তু এখানেই। তামিল রাজনীতিতে সম্পূর্ণ বদলের জন্য আন্দোলন শুরু করেছেন রজনী। অন্যদিকে রাজনীতিতে পরিচ্ছন্নতা আনতে লড়াই শুরু কমলের। তবে, রাজনৈতিক মতপার্থক্য রয়েছে দুজনের দৃষ্টিভঙ্গিতে। তাই এই মুহূর্ত্বে জোট গড়ে দুজনের লড়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

তবে অদূর ভবিষ্যতে তামিল দখলে দুই নায়ক রাজনীতির মঞ্চে হাত মেলালে আশ্চর্যের কিছু নেই। আপাততঃ চেন্নাই রাজনীতিতে রজনী- কমলের যুগ শুরু হল বলাই যায়।