নয়াদিল্লি: ৭০ তম প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রাক্কালে ঘোষিত হল পদ্ম সম্মান ২০১৯। ক্রীড়াক্ষেত্রে দেশের তৃতীয় নাগরিক সম্মান পদ্মভূষণে ভূষিত হলেন পর্বতারোহী বাচেন্দ্রি পাল। পাশাপাশি দেশের চতুর্থ নাগরিক সম্মান পদ্মশ্রী পেতে চলেছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর, ভারতীয় ফুটবলের পোস্টার বয় সুনীল ছেত্রী, প্যাডলার শরথ কমল, কবাডি মাস্টার অজয় ঠাকুর, দাবাড়ু হারিকা দ্রোণাভালি, কুস্তিগির বজরং পুনিয়া প্রমুখ।

৭০ তম প্রজাতন্ত্র দিবসের ঠিক আগে শুক্রবার ভারত সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষিত হল ২০১৯ পদ্ম সম্মান প্রাপকদের তালিকা। ক্রীড়াক্ষেত্রে উৎকর্ষতার জন্য পদ্ম সম্মান প্রাপকের তালিকায় রয়েছে একাধিক ক্রীড়াব্যক্তিত্বের নাম। যার প্রথমেই রয়েছেন পর্বতারোহী বাচেন্দ্রি পাল। প্রথম বাঙালি তথা ভারতীয় মহিলা হিসেবে বিশ্বের সর্বোচ্চ শৃঙ্গজয়ী বাচেন্দ্রি পাল সম্মানিত হলেন দেশের তৃতীয় সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান পদ্মভূষণে। বছর চৌষট্টির এই পর্বতারোহী চতুর্থ নাগরিক সম্মান পদ্মশ্রীতে সম্মানিত হয়েছিলেন আগেই।

দেশের চতুর্থ নাগরিক সম্মান পদ্মশ্রীতে সম্মানিত হলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার গৌতম গম্ভীর। দীর্ঘ ১৩ বছরের বর্ণময় কেরিয়ারে ব্যাট হাতে ভারতীয় ক্রিকেটকে সেবা করার জন্য এই সম্মান পেতে চলেছেন ‘গোতি’। দেশের জার্সি গায়ে ১৪৭টি ওয়ান ডে ও ৪৮টি টেস্ট খেলেছেন গম্ভীর। ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ম্যাচ জয়ে তাঁর অনবদ্য ভূমিকা আজও গেঁথে রয়েছে ক্রিকেট অনুরাগীদের মনে।

পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত হতে চলেছেন দেশের জার্সি গায়ে সর্বোচ্চ গোলস্কোরার সুনীল ছেত্রীও। শুধুমাত্র সর্বোচ্চ গোলস্কোরারই নন মেন ইন ব্লু জার্সিতে সর্বোচ্চ ১০৭ ম্যাচে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করে বাইচুং ভুটিয়ার সঙ্গে এই মুহূর্তে একাসনে তিনি। ১০৭ ম্যাচে তাঁর নামের পাশে লেখা রয়েছে ৬৭টি গোল।

এছাড়াও দেশের চতুর্থ সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মানে ভূষিত হতে চলেছেন কুস্তিগির বজরং পুনিয়া। ২০১৮ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে রুপো জয়ের পাশাপাশি গতবছর জাকার্তা এশিয়াডে ৬৫ কেজি বিভাগে দেশকে সোনা এনে দিয়েছিলেন বজরং। গতবছর কমনওয়েলথ গেমসেও একই বিভাগে সোনা এসেছিল এই কুস্তিগিরের হাত ধরে।

পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত হলেন প্যাডলার শরথ কমলও। ২০১৮ কমনওয়েলথ গেমসে দলগত বিভাগে দেশকে সোনা এনে দিয়েছিলেন এই চেন্নাইয়ান প্যাডলার। ২০০৬ মেলবোর্ন কমনওয়েলথ গেমসে ব্যক্তিগত বিভাগে সোনা ছিল কমলের। তীরন্দাজিতে বোম্বাইলা দেবী, জাতীয় কবাডি দলনেতা তথা ২০১৬ ভারতের কবাডি বিশ্বজয়ের নায়ক অজয় ঠাকুরও উল্লেখযোগ্যভাবে রয়েছেন পদ্মশ্রী প্রাপকের তালিকায়।

এছাড়াও দাবাড়ু হারিকা দ্রোনাভালি ও বাস্কেটবলে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা প্রশান্তি সিং রয়েছেন দেশের চতুর্থ সর্বোচ্চ সম্মান প্রাপকের তালিকায়।