গুয়াহাটি: করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া রুখতে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত অসমের কামাখ্যা মন্দিরের মূল ফটক ভক্তদের জন্য বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত মন্দির কর্তৃপক্ষের। মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে এবছর হচ্ছে না ‘অম্বুবাচী মেলা’ও। মারণ ভাইরাসের হানার আতঙ্কেই দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য ভাঙল কামাখ্যা মন্দির কর্তৃপক্ষ।

একটানা লকডাউনেও সংক্রমণ কমার লক্ষ্মণ নেই। কিছুতেই রোখা যাচ্ছে না নোভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। কেন্দ্রের সুপারিশ মেনে সেই কারণেই ৮ জুন থেকে খুলছে না অসমের কামাখ্যা মন্দির। রাজ্যের একাধিক মন্দির খুলে দেওয়া হলেও বন্ধ রাখা হবে ঐতিহ্যবাহী কামাখ্যা মন্দিরের দরজা।

মন্দির খুলে দেওয়া হলেই ভক্ত সমাগম বাড়বে। করোনার সংক্রমণ দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা তৈরি হবে। সবদিক ভেবেই এবার আপাতত ৩০ জুন পর্যন্ত কামাখ্যা মন্দিরের মূল ফটক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত মন্দির কর্তৃপক্ষের।

সংক্রমণের ভয়ে মন্দির বন্ধ থাকায় এবছর হচ্ছে না ‘অম্বুবাচী মেলা’ও। ইতিমধ্যেই এই মেলা বাতিল বলে ঘোষণা করেছে মন্দির কর্তৃপক্ষ। প্রতি বছর জুন মাসে ‘অম্বুবাচী মেলা’- ভক্তদের ঢল উপচে পড়ে। ভিনরাজ্য থেকেও অনেকে গিয়ে ভিড় করেন এই মেলায়।

এবছর আয়োজকদের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে সংক্রমণের আশঙ্কায় কামাখ্যায় মহোৎসব হবে না। পঞ্জিকা মতে এবছর ২২-২৬ জুন অম্বুবাচী পড়েছে। তবে করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার ভয়ে এবছর কামাখ্যায় হচ্ছে না ‘অম্বুবাচী মেলা’।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত অসমে নোভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১৩৯০। এখনও পর্যন রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। একটানা লকডাউন চললেও গোটা দেশেই বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

শেষ ২৪ ঘন্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৮ হাজার ১৭১ জন। মৃত্যু হয়েছে ২০৪ জনের। দেশে এই মুহূর্তে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ লক্ষ ৯৮ হাজার ৭০৬। মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৫৯৮ জনের।

গোটা বিশ্বে নোভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণের নিরিখে সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে ভারত। ভারতে এক সপ্তাহে নতুন করে আক্রান্ত ৫০ হাজার। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সমীক্ষায় ভারত করোনা আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে ইতালির পরেই বিশ্বের মধ্যে সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প