লখনউ: গোরক্ষপুরের হাসপাতালে শিশুমৃত্যুর ঘটনায় চিকিৎসক কাফিল খানকে গ্রেফতার করল উত্তরপ্রদেশ এসটিএফ৷ এর আগে বিআরডি হাসপাতালে এনসেফেলাইটিস বিভাগের প্রধান চিকিৎসক কাফিল খানকে বরখাস্ত করা হয়৷ আজ শনিবার ‘নায়ক’ চিকিৎসক কাফিল খানকে গ্রেফতার করে নিজেদের হেফাজতে নেয় পুলিশ৷ বিশেষ অভিযান চালিয়ে চিকিৎসককে গ্রেফতার করা হয় বলে সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর৷

জানা গিয়েছে, শিশু মৃত্যুর ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর পরিস্থিতি সামাল দিতে হাসপাতাল পরিদর্শনের পর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যানাথ৷ হাসপাতাল পরিদর্শনে গিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী জেপি নাড্ডাও৷ এরপরই ওই চিকিৎসককে বরখাস্ত করা হয়৷

গত মাসেই বিভিন্ন সংবাদ মাধম্যে নিজের চেষ্টায় বিভিন্ন হাসপাতাল ও নার্সিংহোম থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডারের ব্যবস্থা করে শখানেকেরও বেশি শিশুর প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন অভিযুক্ত চিকিৎসক কাফিল খান৷ সংবাদ সংস্থার দাবি, যদি তিনি এই চেষ্টা না করতেন, তাহলে গোরক্ষপুরের হাসপাতালে শিশু মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়তে পারত৷ সিলিন্ডার আনতে হাসপাতাল ছাড়ার আগে কর্মীদের অ্যাম্বু ব্যাগ পাম্প করে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি৷ এমনকি নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে ১০,০০০ টাকা তুলে সিলিন্ডারের দাম মিটিয়েছিলেন বলেও জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা৷