প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: সামনেই রাজ্যে পুরসভা ভোট অনুষ্ঠিত হবে৷ যদিও তার দিনক্ষণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি৷ কিন্তু রাজ্যের সব দলই ভোটের প্রস্ততি শুরু করে দিয়েছে৷ শুক্রবার বারাসতে দলীয় নেতা কর্মীদের নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করে বিজেপি৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷

বৈঠক শেষে বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় জানান,বিগত দিনে ভোটের সময় আমাদের দলের কর্মীদের উপর পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা হামলা ও আক্রমন করেছে৷ আসন্ন পুরভোটেও সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হওয়ায় সম্ভাবনা রয়েছে৷ যদিও আমরা তৃণমূলের বিরুদ্ধে লড়াই করেই জিতব৷ আমাদের জিত নিশ্চিত৷

এদিকে আসন্ন পুরভোটের আগে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার সাংগঠনিক শক্তি বৃদ্ধিতে জোর দিল বিজেপি৷ এদিন বারাসাতে আসন্ন পুরভোট উপলক্ষে বিভিন্ন সাংগঠনিক জেলার বিজেপি কর্মীদের পুরভোটের পাঠ শেখানো হয়৷ এই বৈঠক থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বিজেপি কর্মীরা কিভাবে আগামীদিনে তাদের নিজ নিজ এলাকায় পুরভোটের প্রস্তুতি শুরু করবে৷

শেষ লোকসভা নির্বাচনে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বারাকপুর ও বনগাঁ লোকসভা আসন দু’টি তৃণমূলের হাত থেকে ছিনিয়ে নিয়েছিল বিজেপি৷ শুক্রবার বারাকপুর, বারাসাত ও বসিরহাটের সংসদীয় এলাকার বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বদের নিয়ে বৈঠক করেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়৷ উত্তর ২৪ পরগনার বারাসাত কলোনী মোড় এলাকায় বিজেপির দলীয় কার্যালয়ে এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়৷ এই বৈঠকে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ও হাজির ছিলেন৷

মুকুল রায় বলেন, “হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে কোন মামলাতেই আমাকে এখন গ্রেফতার করা যাবে না৷ কিন্তু পুরনো একটি মামলায় আমাকে শুক্রবার লালবাজার থেকে সিআইডি ডেকে পাঠিয়েছিল৷ আমি ওদের বলে দিয়েছি আজই আমায় দিল্লীতে যেতে হবে৷ চলতি মাসের ৮ তারিখের পর তদন্তে সহযোগিতা করব৷ ওরা বেছে বেছে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে৷ বর্তমানে আমার বিরুদ্ধে ৩১ টি মামলা, অর্জুনের বিরুদ্ধে ৭১ টি মামলা, দিলীপদার বিরুদ্ধে ৮/৯ টা মামলা করেছে৷ আমাদের হেনস্থা করা হচ্ছে৷’’