স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: নিজামুদ্দিনের ধর্মীয় সম্মেলন নিয়ে এবার মুখ খুললেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গের পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। সমাবেশে যোগদানকারীদের ‘মানববোমা’ বলে কটাক্ষ করলেন তিনি। তবে পরে সুর নরম করেন বিজয়বর্গীয় বলেন, “পরিস্থিতি বুঝে ওদেরই উচিত আত্মসমর্পণ করা। বাকি দায়িত্ব প্রশাসনের। প্রশাসনই প্রয়োজনীয় চিকিতসার ব্যবস্থা নেবেন বলেও আশ্বাস দেন তিনি”।

শুধু কৈলাশ বিজয়বর্গীয় না, করোনা সংক্রমণের জন্য মুসলিমদেরই দায়ী করেছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, “বিদেশ থেকে বহু মানুষ এখানে আসছেন। টুরিস্ট ভিসা নিয়ে আসেন। যেহেতু বিশেষ সম্প্রদায়ভুক্ত তাই তাঁদের কিছু বলা যাবে না। আর তার পরিণামই আমরা এখন ভোগ করছি।” মন্দির করোনা মোকাবিলায় সাহায্যের হাত বাড়ালেও মসজিদ সে অর্থে এগিয়ে আসেনি। তিনি এও বলেন, “যারা আল্লাহর দয়ায় সুস্থ হবেন বলছেন তাঁরাই আক্রান্ত হচ্ছেন।”

উল্লেখ্য, দিল্লির মারকাজ নিজামউদ্দিন মসজিদে একটি ধর্মীয় জমায়েত উপলক্ষে জড়ো হওয়া মানুষজনের মধ্যে অন্তত দশ জনের মৃত্যু হয়েছে। গোটা দেশে ২০০০ জনকে কোয়ারণটাইনে পাঠানো হয়েছে। এখনও পর্যন্ত তাদের মধ্যে ২৪ জন দিল্লিবাসীর পজিটিভ পাওয়া গিয়েছে।কেন্দ্রীয় রিপোর্ট বলছে, দিল্লির মারকাজ নিজামউদ্দিন মসজিদের বিপুল জমায়েতের কারণেই দেশজুড়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৯ হাজার ছুঁতে পারে।

তাই নিজামুদ্দিনের ওই সমাবেশ দেশের করোনা মহামারির এপিসেন্টার হয়ে উঠতে পারে বলে আশঙ্কা করেছিলেন চিকিৎসকরা। জানা গিয়েছে, মার্চের ১ থেকে ১৫ তারিখ পর্যন্ত চলা তবলিঘ-ই-জামাতে যোগ দিতে মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব ও কিরঘিজস্তান থেকে প্রতিনিধিরা এসেছিল।

দিল্লির মসজিদে যারা এসেছিল তাদের মধ্যে প্রথম ১১ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের পজিটিভ রিপোর্ট পাওয়া যায়। এই ১১ জন ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক। তাদের পরীক্ষা হয় হায়দরাবাদে। তেলেঙ্গানায় ৬ জন করোনা আক্রান্তের মৃত্যু হয়েছে যারা দিল্লির ওই মসজিদে যোগ দিয়েছিল।

মসজিদের প্রধান মৌলানারও হদিশ পাওয়া যাচ্ছিল না। যদিও তিনি এদিন অন্তরালে থেকে একটি ভিডিওবার্তায় বলেছেন, কোয়ারেন্টাইনে আছেন। অন্যদের পরামর্শ দিয়েছেন, চিকিৎসকদের কথা মতো চলতে। পশ্চিমবঙ্গ থেকে ৭১ জন নিজামউদ্দিন মসজিদের সমাবেশে অংশ নিয়েছিলেন বলে বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ৭১ জনের মধ্যে ৫৪ জনকে ইতিমধ্যেই কোয়ারান্টাইনে পাঠানো হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, ৫৪ জনের মধ্যে ৪০ জনই বিদেশি।