তুরিন: প্রথমার্ধে বারকয়েক দূরপাল্লার শটে গোলমুখ খোলার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু বারবারই ঢাল হয়ে দাঁড়াচ্ছিলেন বিপক্ষ গোলরক্ষক পেরিন। গোটা প্রথমার্ধ জুড়ে আটকে রাখা গেলেও দ্বিতীয়ার্ধে আর আটকানো গেল না রোনাল্ডোকে। ৫৬ মিনিটে পর্তুগিজ সুপারস্টারের ২৫ গজ দূর থেকে নেওয়া গোলার মতো শটটি গিয়ে আছড়ে পড়ল বিপক্ষের জালে।

প্রথমার্ধে অবধারিত কয়েকটি পতন রোধ করা জেরোনা গোলরক্ষক শরীর ছুঁড়েও নাগাল পাননি বলের। প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকলেও জেরোনার বিরুদ্ধে মঙ্গলবার দ্বিতীয়ার্ধে জ্বলে উঠল জুভেন্তাস। আর তাতেই ছারখার হয়ে গেল হোম টিম। তিন পয়েন্ট ঘরে তুলে ল্যাজিওর সঙ্গে চার পয়েন্টের ব্যবধান রেখেই শীর্ষে থাকল সারির দল। জেরোনাকে এদিন ৩-১ গোলে হারাল জুভেন্তাস। ওল্ড লেডি’র হয়ে চোখধাঁধানো তিনটি গোল করলেন পাওলো দিবালা, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো এবং ডগলাস কোস্তা।

প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর দ্বিতীয়ার্ধে ছন্দোবদ্ধ ফুটবল উপহার দেয় তুরিনের ক্লাবটি। প্রথম গোল তুলে নিতে দ্বিতীয়ার্ধে মাত্র পাঁচ মিনিট সময় নেয় তাঁরা। ৫০ মিনিটে কুয়াদ্রাদোর পাস ধরে বক্সের মধ্যে বিপক্ষের চার-পাঁচ জন ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে দুরন্ত প্লেসিংয়ে বল জালে জড়িয়ে দেন দিবালা। দ্বিতীয় গোল এর মিনিট ছ’য়েক পর। প্রতি-আক্রমণে মাঝমাঠ থেকে বল ধরে বিপক্ষ বক্সের দিকে আগুয়ান রোনাল্ডো প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে আচমকা শট নেন। বিপক্ষ গোলরক্ষকের নাগাল এড়িয়ে পর্তুগিজ ফুটবলারের শট খুঁজে নেয় গোলের ঠিকানা।

৭৩ মিনিটে তৃতীয় গোলের সঙ্গে তিন পয়েন্ট পুরোপুরি নিশ্চিত করে ফেলেন কোস্তা। বক্সের সামান্য বাইরে থেকে ব্রাজিলিয়ানের কার্লিং শট বিনা বাধায় ঢুকে যায় গোলে। জেরোনা গোলরক্ষক তখন নীরব দর্শক। এর তিনি মিনিট বাদে একটি গোল পরিশোধ করে জেরোনা। তবে তা কোনওভাবেই জুভেন্তাসের পয়েন্ট ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য যথেষ্ট ছিল না। ৩-১ গোলে ম্যাচ জিতে মাঠ ছাড়েন রোনাল্ডোরা।

এই জয়ে ২৯ ম্যাচে শীর্ষে থাকা জুভেন্তাসের সংগ্রহে ৭২ পয়েন্ট। পক্ষান্তরে সমসংখ্যক ম্যাচ থেকে দ্বিতীয়স্থানে থাকা ল্যাজিওর সংগ্রহে ৬৮ পয়েন্ট।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ