নিউজ ডেস্ক, কলকাতা: একের পর এক তৃণমূল কাউন্সিলর ইতিমধ্যেই উপস্থিত দিল্লিতে৷ তালিকায় তৃণমূল বিধায়কও রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে৷ আজ মঙ্গলবার বড়সড় কোনও চমক যে অপেক্ষা করছে তেমন আভাস গতকালই দিয়েছিলেন মুকুল পুত্র শুভ্রাংশু৷ দিল্লি যাওয়ার আগে তিনি পরিষ্কার জানিয়েছিলেন, তালিকায় বহু কাউন্সিলর রয়েছে৷ তবে মঙ্গলবারের আগে তিনি মুখ খুলবেন না এ বিষয়ে, এমনটাই জানান৷

মুকুল রায় বিজেপিতে যোগদান প্রসঙ্গে সাফ জানিয়েছিলেন, ‘কাঁচরাপাড়া, হালিশহর, আদি সপ্তগ্রাম, নৈহাটি, বারাকপুর, দমদম, মেখলিগঞ্জ, মাথাভাঙা, বহু বোর্ড, বিধায়করা যোগাযোগ করছে৷ এ তো সবে শুরু৷ এখন এটা চলতে থাকবে৷’

এই মুহূর্তে শুভ্রাংশুর বিজেপি যোগ সময়ের অপেক্ষা বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷ গতকালই বাবার সঙ্গে দিল্লির উদ্দেশ্যে উড়ে যান তিনি৷ মঙ্গলবার দিল্লিতে পৌঁছে গিয়েছে কাঁচরাপাড়া, হালিশহর, নৈহাটি থেকে একঝাঁক কাউন্সিলর৷ সংবাদ মাধ্যমের প্রশ্নের উত্তরে তাঁরা স্পষ্টই জানিয়েছেন তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের জন্যই তাঁরা এসেছেন৷ নৈহাটির ১৭, কাঁচরাপাড়ার ১৮, এভাবেই একঝাঁক কাউন্সির দিল্লির বিজেপির দফতরে হাজির হয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে৷

এমতাবস্থায় তৃণমূলের দুর্গ রক্ষার্থে আজ দুপুরেই পাল্টা বৈঠকে বসতে চলেছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক এমনটাই জানা যাচ্ছে৷ দুপুর ২টো নাগাদ জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের তত্ত্ববধানে এই বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন আরও অনেকে৷ যে সব পুরসভা হাতছাড়া হওয়ার মুখে তাদের পুনরুদ্ধার নিয়েই এই বৈঠকে আলোচনা চলতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে৷ উল্লেখ্য, তালিকায় কাঁচরাপাড়া, হালিশহর, নৈহাটির পাশাপাশি রয়েছে আরও বহু পুরসভা৷ নজরে রয়েছে ভাটপাড়াও৷

সব মিলিয়ে দুর্গরক্ষার লড়াইয়ে মঙ্গলবারের বৈঠকে কী বার্তা দেন তৃণমূল নেতৃত্ব সেইদিকেই চোখ রয়েছে রাজনৈতিক মহলের৷