স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: অর্জুনের মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিলেন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক৷ দলবদল করা তৃণমূলের এই প্রাক্তন বিধায়ককে খাদ্যমন্ত্রীর কটাক্ষ, ”ওর চৈতন্য হোক”।  শুধু তাই নয়, অর্জুনকে পাগল, অশিক্ষিত বলেও তোপ দাগেন তিনি। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের কথায়, ”মস্তানের কথায় উত্তর দিতে আমার লজ্জা করে৷’’ উল্লেখ্য, আজ মঙ্গলবার বারাসত বিশেষ আদালতে হাজিরা দিতে এসে অর্জুন সিং জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকে আর্থিক দুর্নীতির প্রসঙ্গে মন্তব্য করেছিলেন৷ তার পাল্টা জবাবে খাদ্যমন্ত্রী এমনটাই মন্তব্য করেন।

খাদ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন ব্যারাকপুর লোকসভার বিজেপি প্রার্থী অর্জুন সিং। খাদ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ২০ কোটি টাকার আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে বলে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। খাদ্যমন্ত্রী কোথা থেকে এত টাকা পেলেন তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অর্জুন।

এই প্রসঙ্গে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, অর্জুন এলাকাতে মস্তানের মত লাইসেন্স বন্দুক নিয়ে ঘুরে বেড়ায়। একজন ফোর পাশ অশিক্ষিত ছেলে৷ পাগল হয়ে গিয়েছে রাঁচিতে চিকিৎসার প্রয়োজন। বিজেপির নেতারা চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। পাড়ার দাদাদের মতো কথা বলছে ও।

পাশাপাশি ১০০ জন বিধায়কের দল পরিবর্তন নিয়েও বলেছিলেন ভাটপাড়ার দাপুটে নেতা৷ সেই প্রসঙ্গে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, দল ছেড়ে দিলে দলের কিছু হবে না। সব কিছুর উত্তর পাওয়া যাবে ফল প্রকাশের দিন। তখন কপাল চাপড়ানো ছাড়া আর কিছু করার থাকবে না। ৫০ গ্রাম ওয়েট নেই আবার ৫০০ গ্রামের কথা বলছে৷

সদ্য বিজেপিতে যোগদান অর্জুন অভিষেকেও ছেড়ে কথা বলেনি৷ বলেছিলেন ‘‘অভিষেক সোনার চামচ নিয়ে এসেছেন৷ তিনি হঠাৎ যুবরাজ হয়ে গিয়েছেন৷ সিপিএমের মার তো আর খাননি, তাই তিনি সব বুঝলেও ভোট বোঝেন না৷’’ তার জবাবে জ্যোতিপ্রিয় বাবু বলেন, অভিষেক তিন বছরে যা কাজ করেছে তা করতে পারেনি। বিড়াল কে মেরে বাঘ বলছে ইঁদুর কে মেরে সিংহ বলছে। ওর নাম মুখে নিতে লজ্জা করে৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ