প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর : ভাটপাড়া পুরসভা পুনর্দখল করেছে তৃণমূল। বিজেপির হাত থেকে ভাটপাড়া ছিনিয়ে নিয়েছে রাজ্যের শাসকদল। আর তৃণমূলের দখলে ভাটপাড়া যেতেই এই পুরসভার দুর্নীতি নিয়ে সরব হলেন রাজ্যের খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। ‘আগামী দিনে ভাটপাড়া পুরসভার সমস্ত দুর্নীতির নিরপেক্ষ তদন্ত করা হবে’, সাংবাদিকদের জানালেন খাদ্যমন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার সকালে ভাটপাড়া পুরভবনে তৃণমূলের কাউন্সিলররা বিজেপি বোর্ডের চেয়ারম্যান সৌরভ সিংয়ের বিরুদ্ধে আস্থা ভোটে অংশ নেন। আস্থা ভোট প্রক্রিয়ায় এদিন গরহাজির ছিলেন বিজেপির কাউন্সিলররা। তৃণমূলের পক্ষে ১৯টি ভোট পড়ে। ১৯-০ ভোটে ভাটপাড়া পুরসভা পুনর্দখল করে তৃণমূল।

ভাটপাড়া পুরসভায় মোট ৩৫টি ওয়ার্ড রয়েছে। ৩৫ কাউন্সিলরের মধ্যে এক জন মারা গিয়েছেন, একজন বর্তমানে জেলে রয়েছেন আর অন্য জন সিপিএমের। সিপিএম কাউন্সিলর কোনও ভোটাভুটিতেই অংশ নেন না। বাকি ৩২ জন কাউন্সিলরের মধ্যে এদিন ১৯ জন তৃণমূল পক্ষে হাত তুলে তাঁদের আস্থা ভোট প্রদান করেন। সহজেই তৃণমূলের দখলে চলে যায় ভাটপাড়া পুরবোর্ড। ভাটপাড়া পুরসভায় আস্থা ভোট সমস্ত নিয়ম মেনে হয়েছে বলেই জানিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের কাউন্সিলররা।

ভাটপাড়া পুরসভায় আস্থা ভোট চয়ে চিঠি দিয়েছিলেন পুরসভার ১৮ জন তৃণমূল কাউন্সিলর। তবে বৃহস্পতিবার আস্থা ভোট পর্বের সময় হঠাৎ করেই ভাটপাড়া পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান বিজেপির সোমনাথ তালুকদার তৃণমূলের পক্ষে ভোট দেন। প্রসঙ্গত, বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের হাত ধরে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন সোমনাথ তালুকদার। বৃহস্পতিবার তৃণমূলের পক্ষে ভোট দিয়ে বিজেপি বোর্ডের চেয়ারম্যান সৌরভ সিংয়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রকাশ করেন সোমনাথ।

অন্যদিকে, ভাটপাড়া পুরসভা ফের তৃণমূলের দখলে যেতেই এলাকায় যান খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূলের সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘সব মানুষ শান্তি চান। কেউই গোলাগুলির রাজনীতি পছন্দ করেন না। তাই এই বোর্ড আমাদের দখলে এসেছে।’ একইসঙ্গে উপ পুরপ্রধান সোমনাথ তালুকদারের তৃণমূলকে সমর্থন প্রসঙ্গে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘বিজেপির সোমনাথ তালুকদারও আমাদের সঙ্গে চলে এসেছেন। সোমনাথ তালুকদার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাথে থাকতে চান।

উন্নয়নের সঙ্গে থাকতে চান বলেই তৃণমূলের পক্ষে আজ ভোট দিয়েছেন।’ এরই পাশাপাশি ভাটপাড়া পুরসভায় বিজেপির শাসনকালে দুর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভাটপাড়া পুরসভায় প্রচুর আর্থিক দুর্নীতি হয়েছে। সব আর্থিক দুর্নীতির উপযুক্ত ও নিরপেক্ষ তদন্ত করা হবে। দুর্নীতির সঙ্গে কোনও আপস করা হবে না।’

বিজেপি শাসিত পুরবোর্ডের আমলে ভাটপাড়ার উন্নয়ন থমকে গিয়েছে বলেও অভিযোগ জ্যোতিপ্রিয়র। তিনি আরও বলেন, ‘এত দিন ভাটপাড়া পুরসভায় অচলাবস্থা চলছিল। অবসরপ্রাপ্ত পুরকর্মীরা পেনশন পাচ্ছিলেন না। কর্মীরা বেতন পাচ্ছিলেন না। এবার আমাদের বোর্ড কাজ শুরু করলেই সেই সব সমস্যা দ্রুত মিটিয়ে দেওয়া হবে।’

অন্যদিকে, বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং তৃণমূলের ভাটপাড়া পুরবোর্ড পুনর্দখলকে অগণতান্ত্রিক বলে ব্যাখ্যা করেছেন। অর্জুন সিংয়ের অভিযোগ, ‘তৃণমূল কংগ্রেস সম্পূর্ণ বেআইনি কাজ করেছে। ভাটপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যান সৌরভ সিং আগামী ২০ তারিখ মিটিং ডেকে ছিলেন। কিন্তু তৃণমূল তার আগে নিজেরাই নিজেদের মতন করে মিটিং ডেকে ভোটাভুটি করে নিল। গায়ের জোরে ক্ষমতা দখল করছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই বিজেপির পক্ষ থেকে কেউ আস্থা ভোট প্রক্রিয়ায় অংশ নেননি। আমরা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছি।’

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।