বারাসত: আবারও বিজেপিকে কটাক্ষ খাদ্যমন্ত্রী তথা উত্তর ২৪ পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের। বিজেপির ‘বদলা’র জবাব উন্নয়নেই দেওয়া হবে সওয়াল জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের। এছাড়াও তৃণমূলেই কর্মীদের শাসন করা হয়, অন্য দলে এর নজির নেই বলেও মন্তব্য করেন জ্যোতিপ্রিয়।

শনিবার উত্তর ২৪ পরগনায় তৃণমূলের এই অন্যতম নেতা আরও বলেন, ‘বিজেপিতে ঘুন ধরে গিয়েছে। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে উত্তর ২৪ পরগনার সব সিঁড়ি বেয়েই ওঁরা নেমে যাবে।’

দিন কয়েক আগেই বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের একটি মন্তব্যে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে যায়। দিলীপ ঘোষ বলেথিলেন, ‘আগামী বিধানসভা নির্বাচনে জিতে বিজেপি ক্ষমতায় এলে বদলও হবে বদলাও হবে।’ দিলীপ ঘোষের এহেন মন্তব্য নিন্দার ঝড় ওঠে রাজ্যজুড়ে।

বহু বুদ্ধিজীবীও সরব হন এই মন্তব্যের বিরুদ্ধে। বিজেপি রাজ্য সভাপতিকে ‘তালিবানী সন্ত্রাসী’ বলে কটাক্ষ করেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। একইভাবে বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীও দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের নিন্দায় সরব হন।

এবার বিজেপির বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন উত্তর ২৪ পরগনার জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। বিজেপিকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, ‘বিজেপির প্রথম নেতা থেকে শেষ নেতা পর্যন্ত সবাই জোকার। বিজেপিতে ঘুন ধরে গিয়েছে। ওদের দিন শেষ।’

এরই পাশাপাশি পেট্রোল-ডিজেলের লাগাতার দাম-বৃদ্ধি নিয়েও কেন্দ্রের শাসকদলের ভূমিকার কড়া সমালোচনা করেছেন জ্যোতিপ্রিয়। এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন দাম বাড়ছে পেট্রোল-ডিজেলের। করোনা না থাকলে আমরা আন্দোলন করে কেন্দ্রকে জবাব দিতাম।’

এছাড়াও দিলীপ ঘোষের ‘বদলও হবে, বদলাও হবে’ শীর্ষক মন্তব্যের পাল্টা জবাব দেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, ‘ওরা যত বদলার কথা বলবে, তত উন্নয়ন করে দেখাবে তৃণমূল নেতৃত্বাধীন সরকার। তৃণমূলে কর্মীদের শাসন করা হয়, যা অন্য দলে হয় না।’

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।